এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লোকসভায় পাস তিন তালাক বিল,জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভায় পাস তিন তালাক বিল,জেনে নিন বিস্তারিত

দিনভর টানটান উত্তেজনার পর বহু চর্চিত তিন তালাক নিষিদ্ধকারী বিল পাশ হয়ে গেল লোকসভায়। বিল সংক্রান্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করলেও ভোটাভুটির সময় কক্ষত্যাগ করে কংগ্রেস ও আম্মা ডিএমকে। ফলত লোকসভায় বিলটি পাশ করানো নিয়ে কোনো বেগই পেতে হয়নি বিজেপি সরকারকে। ২৪৫ – ১১ ভোটে পাশ হয়ে যায় বিলটি। এদিন লোকসভায় কংগ্রেস-বিজেপি দুইদলই হুইপ জারি করেছিল।

তিন তালাককে নিষিদ্ধ করে উপযুক্ত আইন তৈরি করার নির্দেশ ছিল কেন্দ্রের। সেইমতোই গত সেপ্টেম্বরেই অর্ডিন্যান্স জারি করে তিন তালাক ঘোষণা করে জনতা। এদিন তিন তালাককে নিষিদ্ধ করার দিকে আরো এক ধাপ এগলো মোদী সরকার। এই বিল আইনে পরিনত হলে,আর কোনো মুসলিম পুরুষ তাঁর স্ত্রীকে তাৎক্ষণিক ৩ তালাক দিয়ে বিবাহ বিচ্ছেদ করতে পারবে না। বরং তার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হবে। এবং এর জেরে যদি সে দোষী প্রমাণিত হলে ত বছর পর্যন্ত হাজতবাস হতে পারে তার। শুধু তাই নয়,সঙ্গে দিতে হবে খোরপোষও।

 

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কেন্দ্রীয় সূত্রের খবর,এদিন সংসদে তিন তালাক বিল নিয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন,”মহিলাদের ক্ষমতায়ণের লক্ষ্যেই তৈরি হয়েছে এই আইন। রাজনীতির অভিযোগ ঠিক নয়। তাই একে সুবিচার ও মানবতার পরাকাষ্ঠায় বিচার করা উচিত। বিশ্বের ২০টি দেশে তাৎক্ষণিক তিন তালাক নিষিদ্ধ। তাহলে ভারতের মতো ধর্ম নিরপেক্ষ দেশে একে নিষিদ্ধ করতে আপত্তি কোথায়?”

 

তবে কেন্দ্রের বিরোধীতা করেই বিলটি বিলটি যৌথ সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর দাবি তোলেন লোকসভায় কংগ্রেসের পরিষদীয় দলনেতা মল্লিকার্জুন খড়গে। দাবীতে তিনি জানান,সংশ্লিষ্ট বিলটিতে একধিক প্রস্তাব রয়েছে তা সংবিধানের নিয়মবিরুদ্ধ। এই কথায় সায় দিয়ে বিলটির বিরোধীতা করেন তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

উল্লেখ্য,ভারতে তিন তালাক সমস্যা থেকে মুসলমান নারীদের মুক্তি দেওয়ার দাবী উঠেছিল কয়েক বছর আগেই৷ সম্প্রতি মোদী সরকারের আমলে সুপ্রিম কোর্ট তিন তালাককে ‘‌অবৈধ’ আখ্যা দেয়৷ তারপর কেন্দ্রীয় সরকার সংসদে আইনের প্রস্তাব আনলে প্রস্তাবিত আইন পাশ করানো নিয়ে চলতে থাকে রাজনীতি৷ এরপর সংসদের বাদল অধিবেশনে একগুচ্ছ বিল পাশ করানো হলেও রাজ্যসভায় আটকে যায় ‘তিন তালাক’ বিল। এর জন্য মোদী বিরোধীদের ঘাড়ে দোষ চাপালেও বিরোধীমহল পাল্টা দাবী তোলে,আসলে এই তিন তালাক বিল পাস নিয়ে বিজেপি সরকারেরই সদিচ্ছার অভাব রয়েছে।

যাইহোক,বহু বিতর্কিত অধ্যায় পেরিয়ে এতোদিন পর পাশ হয়ে গেল তিন তালাক নিষিদ্ধকারী বিল। খুশির জোয়ারে হাসছেন মুসলিম নারীরা। তবে বিল পেশ করার পর গোটা এক মাসের বাদল অধিবেশনের যে কোনো দিন যে বিল পাশ করানো যেতো সেটা লোকসভা ভোটের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়েই কেন পাশ করালো মোদী সরকার? প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যায়। সবটাই নির্বাচনের স্বার্থে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভোটব্যাঙ্ক দখলে রাখার জন্যেই, এমনটাই অভিমত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top