এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লোকসভা নির্বাচনের আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর রুখতে কঠোরতম আইন আনছে কেন্দ্র

লোকসভা নির্বাচনের আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর রুখতে কঠোরতম আইন আনছে কেন্দ্র

এবার ভুয়ো খবর,জাল ছবি বা বিকৃত তথ্য সম্বলিত পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করলেই তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি  ব্যবস্থা নিতে উদ্যোগী হলো কেন্দ্রীয় সরকার। সম্প্রতি চারদিনের ভারত সফরে এসেছিলেন হোয়াটস অ্যাপের চিফ এগজিগিউটিভ অফিসার ক্রিস ড্যানিয়েল। তাঁর সঙ্গেই উক্ত বিষয়ে  বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। বৈঠকে তিনি হোয়াটস অ্যাপ কর্তাকে জানিয়েছেন, অবিলম্বেই যেন হোয়াটসঅ্যাপ ভারতের নিজস্ব একটি বিশেষ অভিযোগ গ্রহন কেন্দ্র অর্থাৎ মনিটরিং বিভাগ চালু করে। সেই বিশেষ বিভাগের একজন নোডল অফিসার সহ নিয়ন্ত্রণ এবং নজরদারির জন্যেও যেন কর্মী নিয়োগের ব্যবস্থা করা হয়। ভুয়ো খবর,জাল ছবি এবং বিকৃত তথ্য ছড়ানোর ব্যাপারে ওয়াটসঅ্যাপ যদি উপযুক্ত ব্যবস্থা না নেয়,তাহলে কেন্দ্রীয় প্রশাসন এসবের বিরুদ্ধে আইনি পথে উপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে বলেও জানিয়ে দিলেন এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।

অর্থাৎ ভারতে ওয়াটস অ্যাপ ব্লক করে দেওয়া হতে পারে যদি এসব ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল হওয়া রুখতে কোনো ব্যবস্থা না নেয় হোয়াটসঅ্যাপ। পাশাপাশি যারা স্যোশাল মিডিয়াটিকে হাতিয়ার করে ফেক নিউজ ছড়াচ্ছে সেসব অপরাধীদের বিরুদ্ধে কড়া আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যে বিশেষ নিয়ম চালু করার বিষয়ে ভারা হচ্ছে,এমনটাই জানা গেল কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের সূত্র থেকে।

কিছুদিন আগেই বাজেট অধিবেশনে রবিশঙ্কর প্রসাদ উক্ত ইস্যু রুখতে কড়া শাস্তিব্যবস্থা আনার প্রসঙ্গ তুলেছিলেন। এর আগে ভারতের ফেসবুক এবং ওয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করে বলেছিল ভুয়ো তথ্য,বিকৃত ছবি,খবর ভাইরাল হওয়ার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে। আর এদিন হোয়াটসঅ্যাপ কর্মকর্তাকে সাফ জানিয়ে দিলেন, ভারত উক্ত ইস্যু নিয়ে এবার সিরিয়াসলি কোনো আইনি পদক্ষেপ নেবে। এ বিষয়ে তাদের কোনো রকম উদাসীনতা বা  অজুহাত আর বরদাস্ত করা হবে না। তবে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তা আশ্বস্ত করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে। জানিয়েছেন, এ বিষয়ে যতো দ্রুত সম্ভব উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

উল্লেখ্য,বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়ার জামানায় ভুয়ো খবর,বিকৃত তথ্য ভাইরাল হওয়ার জেরে প্রায় দিন দেশে দাঙ্গা,খুন-জখম, গনপিটুনি,আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো হিংসার নজির সামনে আসছে। গুজব ছড়ানোর জেরে কোনো রকম বিবেচনা না করেই মানুষ মানবিকতার খুন করছে,সাম্প্রদায়িক বিষ উত্তেজনা ছড়াচ্ছে, কেড়ে নিচ্ছে বহু মানুষের প্রাণ। তবে এসবের পাশাপাশি স্যোশাল মিডিয়ার ইতিবাচক ভূমিকাকে অস্বীকার করেননি মন্ত্রী। বন্যা বা প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় ত্রান,পুনর্বাসনের ক্ষেত্রে স্যোশাল মিডিয়া যে কত উপকরী তা কারোর অজানা হয়। কিন্তু এসবের পাশাপাশি দেশে শান্তি বাতাবরণ স্থায়ী রাখতে ভুয়ো খবর এবং বিকৃত তথ্য ভাইরাল হওয়ার লাগাম টানতে সরকার এবার কড়া ব্যবস্থা নেবারই প্রতিশ্রুতি নিয়েছে।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!