এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আসন সমঝোতা নিয়ে চাপান-উতোর অব্যাহত, বাম কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যৎ দিল্লির হাতে

আসন সমঝোতা নিয়ে চাপান-উতোর অব্যাহত, বাম কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যৎ দিল্লির হাতে

Priyo Bandhu Media

সামনেই লোকসভা ভোট আর সেখানে বাম আর কংগ্রেস জোট করে লড়বেন। কিন্তু অনেক টালবাহানার পরেও জোটে দুই তরফ থেকে মধ্যস্থতায় এলেও কিছুতেই ফাঁড়া কাটছে না।

আসন সমঝোতা নিয়ে এখনো জট অব্যাহত। আর তাই এবার প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব বাম কংগ্রেস জোটে আসন নিয়ে সমঝোতা সিদ্ধান্তের ভার দিল্লি নেতৃত্বের হাতেই ছাড়তে চাইছে।

জানা যাচ্ছে যে, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে রায়গঞ্জসহ রাজ্যের দুটি আসনে বাম প্রার্থীরা জয়লাভ করেছিলেন। সেই আসন দুটি সমঝোতানিয়েই বেঁধেছে গোল। এই নিয়ে তড়িঘড়ি শিলিগুড়িতে উত্তরবঙ্গের নেতাদের নিয়ে কংগ্রেস নেতৃত্ব বৈঠক করেছেন কিন্তু কোনো রফাসূত্র না বের হওয়ায় আজ ফের এই প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেসের নির্বাচনী কমিটির বৈঠক হবে।যদি সেখানেও তেমন সন্তোষজনক কোনো রফা না হয় তবে আসন নিয়ে সমঝোতা প্রসঙ্গে সিদ্ধান্তের ভার দিল্লির হাতেই ছাড়বে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব।

রায়গঞ্জ আসনটিতে আগের বার বামেরা জিতেছিল আর সেখান থেকেই সংসদ হয়েছিলেন মোহাম্মদ সেলিম তাই এবার কোনো মতেই বামেরা সেই আসনটি হাতছাড়া করতে চায় না। অন্যদিকে জেলা কংগ্রেসের ঘোষণা মতো এবারের লোকসভা নির্বাচনে ওই আসনে প্রার্থী হবেন দীপা দাসমুন্সি। ফলে গোল বেঁধেছে ওই আসনটি নিয়ে। শুধু এটিই নয় জানা যাচ্ছে যে,মুর্শিদাবাদের একটি আসনেও বাম ও কংগ্রেসের মধ্যে একই জটিলতা রয়েছে। ফলে বামেরাও স্পষ্ট জানিয়েছে, আগে আসন সমঝোতা করতে হবে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর সেই কারণেই তৃণমূল আর বিজেপিকে হারাতে জোটে করতে মরিয়া দুই দলই চায় এরাকটি সুস্থ সমাধান আর এই নিয়েই এবার দিল্লির হস্তক্ষেপ চাইছে রাজ্যের কংগ্রেস নেতৃত্ব।
এই নিয়ে এদিন শংকর মালাকার বলেন, “জোট বা আসন সমঝোতা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত সর্বোচ্চ স্তরেই ঠিক হবে। রাজ্যস্তরে নয়। কংগ্রেস ওই দুটি আসন সামান্য ভোটে হেরেছিল। তাই আসন দুটি আমরা চাইছি। বামেরা জিতেছিল বলে তারাও আসন দুটি চাইছে। কিন্তু সমস্যা মেটাতে সমাধান সূত্র কী হবে তা সর্বোচ্চ স্তরেই নির্ধারণ করা হবে। আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত আছি।”

তবে রাজ্যের ব্যাপারে কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ করবেন না দিল্লি কংগ্রেস তা আগেই জানিয়েছিল কিন্তু আসন সমঝোতা নিয়ে মতামত দিয়ে যদি সমঝোতা ঠিক থাকে না হয়তবা বাং কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যতেই প্রশ্ন উঠে গেলো।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!