এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লক্ষ্য মধ্যবিত্তকে সুরাহা দেওয়া – আয় করে বিপুল ছাড় দেওয়ার পথে কি মোদী- জেটলি? জল্পনা চরমে

লক্ষ্য মধ্যবিত্তকে সুরাহা দেওয়া – আয় করে বিপুল ছাড় দেওয়ার পথে কি মোদী- জেটলি? জল্পনা চরমে

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধীরা। জিএসটি থেকে নোট বাতিল, কৃষক অসন্তোষ থেকে দলিতদের বিক্ষোভ – সারাদেশে এইরকমই একগুচ্ছ ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধীরা। আর বিরোধীদের এই প্রচারের জেরে সম্প্রতি দেশের পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে নিজেদের দখলে থাকা মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্রিশগড়ের ক্ষমতা হারাতে হয়েছে পদ্ম শিবিরকে। কিন্তু সামনেই যে লোকসভা নির্বাচন।

আর সেই লোকসভা নির্বাচনে নিজেদের ক্ষমতাকে টিকিয়ে রাখতে এবার দেশের মধ্যবিত্ত ভোটব্যাংকে নিজেদের বাগে রাখার জন্য এক কৌশলী পদক্ষেপ নিতে চলেছে মোদি সরকার। সূত্রের খবর, এবারের অন্তর্বর্তী বাজেটে দেশের মধ্যবিত্ত ভোটব্যাংককে নিজেদের দখলে রাখতে আয়কর ছাড়ের উর্ধ্বসীমা 5 লক্ষ টাকা করার কথা ঘোষণা করতে পারেন কেন্দ্রের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বর্তমানে আয়কর ছাড়ের উর্ধ্বসীমা আড়াই লক্ষ টাকা রয়েছে। কিন্তু এবার সেই হার বাড়িয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা করার চিন্তা ভাবনা করছে কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকার। তবে শুধু এই আয়কর ছাড়ের উর্ধ্বসীমা বৃদ্ধির সিদ্ধান্তই নয়, দেশের মধ্যবিত্তদের জন্য চিকিৎসা এবং পরিবহনের খরচের ছাড়ের ক্ষেত্রেও কিছু রদবদল করার সম্ভাবনা রয়েছে কেন্দ্রের। জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বণিকসভা কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া ইন্ডাস্ট্রিজের পক্ষ থেকে এই আয়কর ছাড়ের সীমা বাড়িয়ে দ্বিগুণ করার দাবি জানানোর পাশাপাশি 80 সি ধারায় আড়াই লক্ষ টাকা করার পক্ষেও দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

তবে ভোটের আগে সেই করে ছাড় দিলে বিপদ হতে পারে এই আশঙ্কায় এবার ভেবেচিন্তেই পা ফেলতে চাইছে কেন্দ্রের মোদি সরকার। সূত্রের খবর, 1961 সালের আয়কর আইনকে বাতিল করে এবার ডিরেক্ট ট্যাক্স কোড আনতে চলেছে কেন্দ্র। খুব তাড়াতাড়ি এই ব্যাপারে একটি রিপোর্টও পেশ করা হবে বলে খবর। সব মিলিয়ে এবার লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশের মধ্যবিত্তদের বড় ভোটব্যাংকএ নিজেদের দখলে রাখতে আয়করে বিপুল ছাড় দেওয়ার ঘোষণা করার পথে যেতে চলেছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!