এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ভোটযুদ্ধে বড় ভরসা “রাম- হনুমান”, ক্রমশ প্রমাণ করে দিচ্ছে বিজেপি-তৃণমূল দুই দলই

ভোটযুদ্ধে বড় ভরসা “রাম- হনুমান”, ক্রমশ প্রমাণ করে দিচ্ছে বিজেপি-তৃণমূল দুই দলই

গত বছর থেকেই রাজ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্যোগে রামনবমীর বহর বেড়েই চলেছে। আর লোকসভা নির্বাচনের মরসুমে এবার সেই রামনবমী পড়ে যাওয়ায় কে বেশি হিন্দু ভক্ত তা প্রমাণ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে সব রাজনৈতিক দলই। বস্তুত, গতবছর বিজেপির পক্ষ থেকে অস্ত্র মিছিল করার অভিযোগে শাসক দল তৃণমূলের নেতা নেত্রীরা এনিয়ে সরব হয়।

তবে পরে অবশ্য তৃণমূলের নেতাদেরও সেই রামনবমীর শোভাযাত্রা মিছিলে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়। আর এবার লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে হিন্দু ভোটব্যাংককে নিজেদের দিকে টানতে সেই রামভক্ত হওয়া নিয়ে আপ্রাণ চেষ্টা করছে রাজ্যের শাসক বিরোধী দুই রাজনৈতিক দলই।

সূত্রের খবর, রবিবার ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল জুড়ে শাসক এবং বিরোধী- দুই দলের প্রার্থীরাই‌ ভগবান রামকেই পাখির চোখ করলেন। জানা গেছে, এদিন সকালে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী নৈহাটির শিবদাসপুর, মাঝিপাড়া পলাশি এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে একটি পদযাত্রা করে পরে মাদরালে গিয়ে একটি হনুমান মন্দিরে পূজো দেন।

সেখানে চিকিৎসকদের একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে বিকেলের দিকে কাপা চাকলা এলাকায় পদযাত্রা করে সেখানে চড়কতলার একটি মেলায় যোগ দিয়ে জনসংযোগ করেন। এদিকে কাঁচরাপাড়ায় রামনবমীর মিছিলে এদিন পা মেলাতে দেখা যায় সেখানকার তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় এবং কাঁচরাপাড়া পৌরসভার চেয়ারম্যান সুদামা রায়কে। পাশাপাশি গারুলিয়া পৌরসভা এলাকায় নোয়াপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক সুনীল সিং মাথায় পাগড়ি পড়ে হাজার হাজার মানুষের সাথে মিছিলে হাটেন বলে খবর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

তবে শুধু তৃণমূলের পক্ষ থেকেই নয়, ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংহও এদিন রামনবমী উপলক্ষে মাথায় পাগড়ী পরে সকালবেলা ব্যারাকপুরের নোনা চন্দনপুকুর বাজার থেকে দলীয় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মিছিল করে ব্যারাকপুর পুরসভার একাধিক ওয়ার্ডে জনসংযোগ করেন। পরে কাপায় একটি কীর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বিকেলের দিকে কাকিনাড়ায় রাম নবমীর মিছিলে যোগ দেন তিনি।

পরবর্তীতে আরও নানা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ভাটপাড়ায় একটি পুজো দিয়ে নিজের জনসংযোগ সারেন অর্জুন সিং। তবে শুধু তৃণমূল এবং বিজেপি প্রার্থীই নয়, এদিন সকাল সকাল কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মনিরামপুর, সদর বাজার এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করতে দেখা যায় বাম প্রার্থী গার্গী চট্টোপাধ্যায়কে।

তবে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী মহম্মদ আলমকে এদিন প্রচার অপেক্ষা দলীয় কর্মীদের নিয়েই বেশি সাংগঠনিক বৈঠক করতে দেখা গেছে।তবে রামনবমী উপলক্ষে ভগবান রামের আশীর্বাদ পেতেই শাসক-বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা যে মাঠে নেমে পড়েছে হিন্দু ভোটকে নিজেদের বাগে নিয়ে আসতে, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

Top
error: Content is protected !!