এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > লোকসভা বৈতরণী পেরোতে অনুব্রত মণ্ডলের নজর আদিবাসী ভোটে – নিচ্ছেন একের পর এক পদক্ষেপ

লোকসভা বৈতরণী পেরোতে অনুব্রত মণ্ডলের নজর আদিবাসী ভোটে – নিচ্ছেন একের পর এক পদক্ষেপ

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের 42 টি আসনের মধ্যে 42 টি আসনই নিজেদের দখলে রাখতে হবে বলে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায। আর দলনেত্রীর এহেন নির্দেশকে অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে ইতিমধ্যেই মাঠে নেমে পড়েছেন তৃণমূলের নেতৃত্বরা।

যেখানে ব্যতিক্রম নয় বীরভূম জেলাও। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে ইতিমধ্যেই বীরভূম জেলায় বিভিন্ন বুথে বুথে মিটিং করতে শুরু করে দিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। যেখানে ভোটের পর্যালোচনা থেকে শুরু করে মানুষের ঠিক কি ধরনের ক্ষোভ রয়েছে তা শুনে সেই মানুষের ক্ষোভকে প্রশমিত করারও চেষ্টা করছেন তিনি। আর বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের এরকমই একটি মিটিংয়ের ছবি ধরা পরল বুধবার মহম্মদবাজারে আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায় একটি বুথভিত্তিক কর্মী সম্মেলনে।

সূত্রের খবর, এদিনের এই সম্মেলনে অনুব্রত মণ্ডল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী, রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধায়ক লীলাবতী সাহা, বীরভূম জেলা তৃণমূলের সহ-সভাপতি মলয় মুখোপাধ্যায়, অভিজিৎ সিংহ সহ অন্যান্যরা। ঝিরঝির বৃষ্টি হওয়া সত্ত্বেও কেন এদিনের সভায় ত্রিপলের ব্যবস্থা করা হয়নি তা নিয়ে ব্লক তৃণমূলের সভাপতি তাপস সিনহাকে কিছুটা ধমক দিতে দেখা যায় অনুব্রত মণ্ডলকে।

আর এরপরই বিভিন্ন বুথ ধরে ধরে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ঠিক কত লিড হবে তা নিয়ে পর্যালোচনা করেন তিনি।জানা যায়, সেকেড্ডা পঞ্চায়েতের অঞ্চল সভাপতির উদ্দেশ্যে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “লোকসভা ভোটে ভালো লিভ চাই। তা না হলে কিন্তু সরিয়ে দেব।” পাশাপাশি গনপুর অঞ্চল সভাপতি পদে যেন দ্রুত মনোনয়ন করা হয় সেই ব্যাপারেও ব্লক তৃণমূল নেতা গৌতম মন্ডলকে নির্দেশ দেন তিনি।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে লোকসভা ভোটের আগে পার্টি অফিসে বসে থেকে কোনরূপ রাজনীতি করা যাবে না বলেও সকল কর্মী-সমর্থকদের হুঁশিয়ারি দিয়ে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “এখন থেকেই মাঠে ময়দানে নেমে রাজনীতি করুন। বুথ সম্মেলন করুন।” এদিকে গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে মহম্মদবাজারে আদিবাসী ভোট পায়নি তৃণমূল কংগ্রেস। যা নিয়ে কিছুটা অস্বস্তিতে ছিল জেলা তৃণমূলের নেতৃত্বরা। তবে লোকসভা ভোটের আগে সেই আদিবাসীদেরই এবার নিজেদের বাগে আনতে মোক্ষম চাল দেওয়ার চেষ্টা করলেন অনুব্রত মণ্ডল।

এদিনের এই সম্মেলনে উপস্থিত জেলা পরিষদের সভাধিপতির উদ্দেশ্যে অনুব্রত বাবু বলেন, “জেলা পরিষদের যে টাকা এসেছে সেখান থেকে 3 কোটি 60 লক্ষ টাকা এই ব্লকে দিয়ে দিন। সেই টাকা দিয়ে সোলার সাবমার্সিবল সহ দুটি সাবমার্সিবল করে দিন। আদিবাসী ভাইদের যেন আর পাশের গ্রাম থেকে জল আনতে না হয়।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, মহম্মদবাজারে বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বেশ ভালই ভোট বেড়েছে বিজেপির।

কিন্তু লোকসভা ভোটে গেরুয়া শিবির যাতে আর এখানে থাবা বসাতে না পারে তার জন্য এবার সেইখানে সাবমার্সিবল করা হবে বলে প্রকাশ্যে জানিয়ে দিয়ে সেই আদিবাসী সমাজেরই মন জয়ের চেষ্টা করলেন অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু অনুব্রত বাবুর এই চেষ্টায় আদিবাসী মানুষ জনেরা আদৌ তাদের ভোট সেই তৃণমূলের পক্ষে দেবে কিনা তা স্পষ্ট হবে আগামী লোকসভা নির্বাচনের ভোটবাক্স খোলার পরই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!