এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > লোকনাথ মন্দিরে বিপর্যয়ের পর বড়সড় পদক্ষেপ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

লোকনাথ মন্দিরে বিপর্যয়ের পর বড়সড় পদক্ষেপ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রাচীন ধর্মক্ষেত্রকে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই নতুন করে সাজাতে উদ্যোগী হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার কচুয়া ও চাকলা ধামের সামগ্রিক উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহন করল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এর জন্য জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তীর নেতৃত্বে একটি কমিটি গড়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে লোকনাথ মিশন কচুয়া ধামের ট্রাস্টি ও লোকনাথ সঙ্ঘ চাকলা ট্রাস্টি বোর্ডের পাঁচজন করে সদস্য ছাড়াও থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এবং বনগাঁ ও বসিরহাট পুলিস জেলার দুই পুলিস সুপার।

মূলত এই কমিটি আলোচনা করেই কচুয়া ও চাকলা ধামের সামগ্রিক উন্নয়ন করার পরিকল্পনা করবে বলে জানা গেছে। শুধু তাই নয়, এই দুই লোকনাথ ধামকে ঘিরে পর্যটনের একটি সার্কিট করা হবে। বস্তুত, গত জন্মাষ্টমীতে এই কচুয়া ধামের দুর্ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটার পরই আহতদের দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককেও কচুয়াতে পাঠিয়েছিলেন তিনি। আর এবার এই মন্দিরের ব্যাপারে অভিনব উদ্যোগ নিলেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার রাজ্য সরকারের সদর দপ্তর নবান্নে লোকনাথ মিশন কচুয়াধাম এবং চাকলা লোকনাথ সেবা সঙ্ঘের কর্তাব্যক্তিদের নিয়ে একটি বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী। যে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, মুখ্যসচিব মলয় দে, স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা। আর সেই বৈঠকেই মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কচুয়াধামে যাতায়াতের জন্য রাস্তা তৈরির আবেদন জানান লোকনাথ মিশনের কর্তাব্যক্তিরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আর সকলের সমস্ত সুবিধা অসুবিধার কথা শুনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “দুই লোকনাথ ধামের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য রাস্তা, আলো সহ পরিকাঠামোর ব্যবস্থা করা হবে। কচুয়া ও চাকলা থেকে কলকাতা আসা-যাওয়ার বাস রুট করে দেওয়া হবে। মহিলা শৌচালয়ের ব্যবস্থা করা হবে। যাত্রী নিবাস ও বাস শেল্টার করা হবে।” কিন্তু তিনি উন্নয়নের ব্যাপারে সমস্ত ফর্মুলার কথা বললেও আরও কি করে এই জায়গাগুলোর বিকাশ ঘটানো যায়, তার জন্য একটি কমিটি তৈরি করে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

আর মুখ্যমন্ত্রী এহেন ঘোষণায় এখন খুশির হাওয়া 2 লোকনাথ ধামের কর্তা ব্যক্তিদের মধ্যে। এদিন এই প্রসঙ্গে লোকনাথ মিশনের কার্যকরী সভাপতি রণজিৎ চৌধুরী বলেন, “আমরা যেসব সমস্যার কথা তুলে ধরেছিলাম, মুখ্যমন্ত্রী তা মানবিকভাবে সব করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। আশাকরি সব সমস্যা মিটে যাবে। তীর্থযাত্রীদের খুব সুবিধা হবে। কচুয়া ও চাকলার সামগ্রিক উন্নয়নের পরিকল্পনা করতে বলেছেন তিনি। এর জন্য একটি কমিটিও করে দিয়েছেন। কচুয়া ও চাকলার মধ্যে বাস পরিষেবা চালু করবেন বলেছেন। এছাড়াও কলকাতার সঙ্গে যোগাযোগ আরও উন্নত করার কথা বলেছেন।”

সব মিলিয়ে লোকনাথ মন্দিরের বিপর্যয়ের পর এবার সমস্যা মেটাতে একটি কমিটি গঠন করে দিয়ে সেখানকার উন্নয়নের কথা ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!