এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরসভা নির্বাচন দিয়েই কি একসাথে পথ চলা শুরু বাম-কংগ্রেসের!হেভিওয়েট নেতার মন্তব্যে জল্পনা

পুরসভা নির্বাচন দিয়েই কি একসাথে পথ চলা শুরু বাম-কংগ্রেসের!হেভিওয়েট নেতার মন্তব্যে জল্পনা

শেষ গত 2016 বিধানসভা নির্বাচনে তারা হাতে হাত ধরে লড়াই করেছিল। যার ফল খুব একটা ভালো না হলেও একসাথে লড়াই করলে যে ভবিষ্যতে ভালো জায়গায় যাওয়া যাবে, তা অনুধাবন করতে পেরেছিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এবং বিধান ভবনের নেতারা। আর সেইমত সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনেও বাংলায় হাতে হাত ধরে লড়াই করে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধীদল বিজেপিকে রুখতে চেয়েছিলো তারা।

তবে তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। জোট তো হয়ইনি দুই দলের মধ্যে, উল্টে কংগ্রেস বাংলার 42 টি লোকসভা আসনের মধ্যে দুটি আসন পেলেও বামেরা শূন্য হয়ে গিয়েছে।

অন্যদিকে বিরোধীদলের জায়গা দখল করে বিজেপি দল বাম, কংগ্রেসের অস্তিত্ব বিপন্ন যেমন করেছে, ঠিক তেমনই শাসক দল তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। যা চরম চিন্তা বাড়িয়েছে সেই বাম এবং কংগ্রেসের। কেননা একেই তাদের সাংগঠনিক বেহাল দশা, তার উপরে গেরুয়া শিবিরের বাড়বাড়ন্তে কার্যত সাইনবোর্ডের মুখে পড়ে গিয়েছে তারা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তাই সামনের 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে যদি তাদের ঘুরে দাঁড়াতে হয়, তাহলে জোট বদ্ধ হয়ে বাম- কংগ্রেসের লড়াই করা উচিত বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশ দাবি করেছিল। এমনকি নিজেদের রাজনৈতিক সংকটের কথা অনুধাবন করে কিছুদিন আগেই এই বাম এবং কংগ্রেসের জোটের পক্ষে সওয়াল করতে দেখা গিয়েছিল বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস সাংসদ তথা লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে। তবে শেষপর্যন্ত এই জোট হবে কি না, তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। অবশেষে সেই জল্পনায় জল ঢেলে সমস্ত ব্যাপারটা স্পষ্ট করলেন প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র।

সূর্যের খবর, মঙ্গলবার কাটমানি সহ মোট 7 দফা ইস্যুতে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির নেতৃত্বে কলকাতা কর্পোরেশন ঘেরাও করে অবস্থান বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা। আর সেখানেই বাম কংগ্রেসের জোটের ব্যাপারে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করতে শোনা যায় সোমেন মিত্রকে।

যেখানে তিনি বলেন, “আগামী কলকাতা পৌরসভা নির্বাচনে বাম দলগুলোর সঙ্গে আসন সমঝোতা নিয়ে কথা চলছে। ইতিমধ্যেই যৌথভাবে শাসকদলের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে বাম-কংগ্রেস।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, সোমেন মিত্রের এই কথা থেকেই স্পষ্ট যে, আর বিন্দুমাত্র দেরি না করে নিজেদের মধ্যে রাজনৈতিক চুক্তি করে নিতে চায় বাম এবং কংগ্রেস। আর তাইতো 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা না করে সামনের কলকাতা পৌরসভার নির্বাচন থেকেই হাতে হাত ধরে লড়াই করতে চাইছে তারা।

এদিন এই কলকাতা কর্পোরেশনের বিক্ষোভ দেখানো প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, “ঐতিহ্যবাহী কলকাতা কর্পোরেশনের দুর্নীতিতে ডুবে আছে। প্রোমোটার-সিন্ডিকেট রাজে শাসক দল তৃণমূলের অশুভ আঁতাতের ফলে নাগরিকদের প্রাণ ওষ্ঠাগত হচ্ছে। শ্রমিকদের প্রাপ্য মজুরিতেও কাটমানির ভাগ বসানো হচ্ছে। শাসক দল তৃণমূলের মদতে জলাজমির ভরাট চলছে। কর্পোরেশনে হাজার হাজার শূন্যপদে কোনো নিয়োগ নেই। এই চরম নৈরাজ্যের প্রতিবাদে কলকাতা কর্পোরেশনের হৃতগৌরব পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে আজ আমাদের এই কর্মসূচি।”

পাশাপাশি এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা কর্পোরেশনের বিরুদ্ধে তাদের করা অভিযোগের জবাব একটি শ্বেতপত্রে দেওয়া হোক বলেও দাবি জানান প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!