এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফের তৃণমূলের ঘরে ভাঙ্গন ধরালো বিজেপি, বড়োসড়ো শক্তি বৃদ্ধি গেরুয়া শিবিরের-দাবি এমনটাই

ফের তৃণমূলের ঘরে ভাঙ্গন ধরালো বিজেপি, বড়োসড়ো শক্তি বৃদ্ধি গেরুয়া শিবিরের-দাবি এমনটাই

লোকসভা ভোট মিটে গেছে অনেকদিন। প্রাথমিকভাবে ভেঙে পড়ার পর ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছে ঘাসফুল শিবির। ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করে তার নির্দেশ মত সমস্ত কাজ এখন করছে তৃণমূল শিবির। যার ফলে কিছুটা হলেও নিজেদেরকে গোছাতে পেরেছে বলে দাবি তৃণমূলের।

কিন্তু ঘর ভাঙ্গা থেকে কিছুতেই রেহাই পাচ্ছে না রাজ্যের শাসক দল। দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের প্রক্রিয়া এখনো অব্যাহত। এদিন ফের দক্ষিণ 24 পরগনা তৃণমূলের ঘরে হানা দিল গেরুয়া শিবির।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা যাচ্ছে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি থেকে সিপিএমের লোকাল কমিটির সদস্য প্রায় সকলেই এদিন বিজেপিতে যোগদান করেছেন। মথুরাপুর লোকসভার অন্তর্গত রায়দিঘিতে এদিন বিজেপির একটি দলীয় অনুষ্ঠান হয় সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি দীপেন চক্রবর্তী জেলা সম্পাদক এবং মথুরাপুর লোকসভার প্রার্থী শ্যামাপ্রসাদ হালদার সহ জেলা নেতৃত্ব। আর সেখানেই রায়দিঘি বিধানসভার অন্তর্গত লালপুর অঞ্চলের তৃণমূল সভাপতি ও বিভিন্ন সভাপতি সহ সিপিএমের লোকাল কমিটির সদস্য, পঞ্চায়েত সদস্য, নেতা নেত্রী তৃণমূল, সিপিএম থেকে বিজেপিতে যোগদান করেন এমনটাই দাবি বিজেপির।

এদিন আগত নেতাকর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন জেলা নেতৃত্ব। যোগদানকারীরা বিজেপিতে যোগদান করে দাবি করেন তৃণমূলের তেমন উন্নয়ন হয়নি বলেই তারা বিজেপিতে এসেছেন। এদিকে সিপিএমের দাবিও একই।

তাদেরও দাবি রাজ্যে তৃণমূলকে হটাতে বিজেপি ছাড়া আর কোন উপায় নেই তাই তারা বিজেপিতে যোগদান করেছেন এদিকে বিজেপির তরফ থেকে দাবি করা হচ্ছে তৃণমূলে আর কেউ থাকতে চাইছেন না. শুধু তৃণমূল না বিজেপি একমাত্র রাজ্যে প্রতিপক্ষ হয়ে উঠেছে যে কারণে অন্য দল থেকে বিজেপিতে যোগদান করছে এবং ক্রমশ সংখ্যাটা আরও বাড়বে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!