এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > তৃনমূল ছেড়ে বিজেপিতে গেলেন মমতা ঘনিষ্ঠ রাজ্যের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

তৃনমূল ছেড়ে বিজেপিতে গেলেন মমতা ঘনিষ্ঠ রাজ্যের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার টার্গেট পূরণ করতে পারেননি। 42 এ 42 এর শ্লোগান দিলেও তৃণমূলের দখলে এসেছে মোটে 22 টি আসন। তবে সময়ের সাথে সাথে পরিস্থিতির পরিবর্তন হবে এবং রাজ্যে বিজেপি ঝড় উঠে যাবে বলে দাবি করতে দেখা গেছে তৃণমূল নেতাদের।

কিন্তু বাস্তবে সত্যিই কি এই কাজটা অতটা সহজ! এখন এই প্রশ্নই ঘোরাফেরা করছে সব মহলে। কেননা বীরভূমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় ভাই অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্টর দাপটে যেখানে বাঘের গরুতে কার্যত এক ঘাটে জল খায় বলে অভিযোগ করতে দেখা যায় বিরোধীদের, এবার সেই কেষ্টর পরিবারেই ভাঙ্গন ধরাল বিজেপি।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের খুড়তুতো ভাই সুমিত রঞ্জন মন্ডল।জানা গেছে, পেশায় প্রাথমিক শিক্ষক এই সুমিত রঞ্জন মন্ডলের সঙ্গে অনুব্রত মণ্ডলের অত্যন্ত ভালো সম্পর্ক। ফলে লোকসভা নির্বাচনের পরে সেই সুমিতবাবু তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় এখন অনুব্রত মণ্ডল তার পরিবারে তৃণমূলের সমর্থন ঠিকমত বিস্তার করতে পারলেন না বলেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বোলপুরের রেল ময়দানে বিজেপির প্রকাশ্য জনসভায় অনুব্রত মণ্ডলের ভাই সুমিত রঞ্জন মন্ডলের পাশাপাশি বোলপুর পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে প্রায় দেড় হাজার তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগ দেন। যাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন বীরভূম জেলা বিজেপির সভাপতি রামকৃষ্ণ রায়, সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কালোসোনা মন্ডল, রামপ্রসাদ দাস সহ অন্যান্যরা। কেন হঠাৎ দাদার সংস্পর্শ ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন তিনি!

এদিন এই প্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডলের ভাই সুমিত রঞ্জন মন্ডল বলেন, “বিজেপির আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই আমি বিজেপিতে যোগ দিয়েছি।” এদিকে বীরভূম জেলায় প্রধান কারিগর তৃণমূলের অনুব্রত মণ্ডলের পরিবারেই এহেন ভাঙ্গন দেখে এখন সমালোচক মহলের একাংশ তীব্র কটাক্ষ করতে শুরু করেছে। অনেকে বলছেন, আসলে তৃণমূলের এখন শেষের সময়। আর তাই তো দাদা অনুব্রত মণ্ডলের সঙ্গে থেকে লাভ নেই বুঝেই এখন ভাই সুমিত রঞ্জন মন্ডল বিজেপিতে যোগ দিলেন।

আর এখানেই একাংশ প্রশ্ন করতে শুরু করেছেন, অনেকেই বলেন তৃণমূলে নাকি দক্ষ সংগঠক হিসেবে পরিচিত অনুব্রত মণ্ডল। তাহলে যিনি নিজের পরিবার সামলাতে পারেন না, সেই ক্ষেত্রে বিজেপির এই উত্থান দমিয়ে কি করে বীরভূম জেলা রক্ষা করবেন তিনি!

সব মিলিয়ে এবার বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের ভাইয়ের বিজেপিতে যোগদানে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় কেষ্টর নেতৃত্ব নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!