এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > কর্মসূচির ভারে দলের সাথে যুক্ত বলতে নেতাদের অস্বীকার থেকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, জেরবার তৃণমূল

কর্মসূচির ভারে দলের সাথে যুক্ত বলতে নেতাদের অস্বীকার থেকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, জেরবার তৃণমূল

প্রভাব বাড়িয়ে তাদের সমানে সামনে চলছে বিজেপি এই রাজ্যে একথা লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল নেতৃত্ব কিছুতেই মানতে চাননি। দেখেও না দেখার ভান করেছেন শীর্ষ নেতৃত্ব থেকে দলীয় কর্মীরা। কিন্তু লোকসভা ভোটের ফলাফলে স্পষ্ট হয়ে গেছে যে রাজ্যে তাদের ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে বিজেপি।

আর তারপরেই নড়েচড়ে বসেছে তৃণমূল নেতৃত্ব আর ফের ঘুরে দাঁড়াতে তৃণমূল নেতৃত্ব ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোরকে দলের সমস্ত দায়িত্ব দিয়েছেন। আর সেই নিয়েই এখন একের পর এক জনসংযোগ করার লক্ষ্যে কর্মসূচি গৃহীত হচ্ছে তৃণমূলের তরফ থেকে।

অনেক জায়গা থেকে অভিযোগ আসছে দলের ছোটখাটো নেতা-নেত্রীদের তেমনভাবে দলীয় কর্মসূচিতে দেখা যাচ্ছে না। তবে বড় কোন নেতার নাম এতদিন আসেনি কিন্তু এদিন সে নামও সামনে এসে গেল। তালিকা অনুযায়ী জনসংযোগ কর্মসূচিতে তার অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তাকে দেখা যায়নি অভিযোগ এমনটাই। তিনি হলেন যুব তৃণমূল নেতা সুখেন্দু মাইতি।

অথচ তাঁকে জিজ্ঞাসা করলে তার স্পষ্ট দাবি তিনি তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত নন. ফলে কর্মসূচি করার কোন প্রশ্নই ওঠে না। আর এই নিয়েই দলের অন্দরে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে কি দলের কর্মসূচির ভারী নিজেদেরকে অস্বীকার করছেন তৃণমূল নেতারা?কোননা নানা কর্মসূচির খুঁটিনাটি সমস্ত বিষয়ে রিমোর্ট পাঠাতে হচ্ছে প্রশান্ত কিশোরকে এমনটাই নির্দেশিকা রয়েছে নেতাদের উপর। আর শুধু তাই নয়, পান থেকে চুন খসলেই জানতে চাওয়া হচ্ছে স্পষ্ট কারণ। ফলে দলের অন্দরেই কড়া মাস্টারমশাই প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে ক্ষোভ শুরু হয়েছে। মুখে সরাসরি কিছু না বললেও অনেকেই দাবি করছেন কাজের চাপ প্রচুর বেড়েছে ও বাড়ছে । ফলে এক্ষেত্রেও সেই চাপ থেকে বাঁচতেই যুবনেতা এমন দাবি করলেন না তো উঠছে প্রশ্ন।

প্রসঙ্গত কেসিয়ারিতে গত লোকসভায় বিজেপি ভালো ফল করেছে কিছুটা হলেও কোণঠাসা হয়ে পড়েছে তৃণমূল। আর সেখানেই প্রাক্তন ব্লক সভাপতি জগতের অনুগামী ও এককালের সক্রিয় নেতা দাবি ঘিরে প্রশ্ন উঠছে। যদি তিনি নিষ্ক্রিয়ই হন তবে তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কেন?

এই বিষয়ে অবশ্য তৃণমূল নেতারা মুখে কুলুপ এঁটেছেন , আর সমস্ত দায় চাপিয়েছেন প্রশান্ত কিশোরের উপর। তাঁদের দাবি এ বিষয়ে তারা কিছু জানেন না। প্রশান্ত কিশোর যে তালিকা দিয়েছেন সেই তালিকা অনুযায়ী কাজ হচ্ছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এই নিয়ে জেলা তৃণমূল সভাপতি জানান এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা। এখানকার প্রত্যেকদিনই তৃণমূলের কর্মসূচি চলছে। বিধায়ক ব্লক সভাপতি থাকছেন। অন্যদিকে আবার বিধায়ক পরেশ মুর্মু ও ব্লক সভাপতি পবিত্র শীটের বিরোধও চাপা থাকেনি। বিধায়ক বলছেন, ”নেতা মানেই বড় মনের হতে হবে। তার খামতি আছে।” ব্লক সভাপতির পাল্টা বক্তব্য, ”সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে সঠিক ভাবে কাজ করা যাচ্ছে না।”

ফলে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের প্রভাবও রয়েছে তাও স্পষ্ট ফলে এখন ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোর কোন জাদুতে এগুলো ঠিক করেন, তৃণমূলের সংগঠনকে উজ্জীবিত করেন সেই নিয়ে চর্চা চলছে রাজনৈতিক মহলে।

Top
error: Content is protected !!