এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লক্ষ্য 2019, তাই অধিবাসীদের মনে পড়েছে মুখ্যমন্ত্রীর, অভিযোগ ঝাড়খন্ড দিশম পার্টীর কেন্দ্রীয় সভাপতির

লক্ষ্য 2019, তাই অধিবাসীদের মনে পড়েছে মুখ্যমন্ত্রীর, অভিযোগ ঝাড়খন্ড দিশম পার্টীর কেন্দ্রীয় সভাপতির

এরাজ্যে এবার আদিবাসী দিবসকে মহাসমারোহে পালন করছে রাজ্য সরকার। তবে এই অনুষ্টান করার পেছনে সরকারের ভোট রাজনীতির উদ্দেশ্য আছে বলে তৃনমূল সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন ঝাড়খন্ড দিশম পার্টীর কেন্দ্রীয় সভাপতি সালখান মুর্মু। এদিন মালদার হবিবপুরের কেন্দপুকুরে একটি আদিবাসী দিবস উদযাপন অনুষ্টানে উপস্থিত হন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এছাড়াও ছিলেন ইংরেজবাজারের প্রাক্তন বিধায়ক কৃষ্নেন্দুনারায়ন চৌধুরী, ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান তথা বর্তমান বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষ সহ অনেকেই।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

তবে আদিবাসীদের এই অনুষ্টানে তৃনমূলের মালদা জেলা পরিষদের বিদায়ী সভাধিপতি সরলা মুর্মু ও বামনগোলা ব্লক তৃনমূলের সভাপতি অমল কিস্কু ছাড়া চোখে পড়েনি আদিবাসীদের কোনো প্রতিনিধিকে। এদিনের এই অনুষ্টানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী রাজ্য সরকারের উদ্যোগে আদিবাসী সমাজের উন্নয়নের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এদিন তিনি বলেন, “কন্যাশ্রী , শিক্ষাশ্রী, রুপশ্রী প্রকল্প চালুর পাশাপাশি সরকারেল তরফে জঙ্গলমহলের হুজুরের থানগুলি বাধিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন অলচিকি ভাষায় অনেক স্কুলে পড়ানো হয়। এবার সেই অলচিকি ভাষাতে আরও স্কুল স্থাপিত হবে।”

এদিকে সরকারের তরফে রাজ্যের আদিবাসীদের উন্নয়ন নিয়ে যখন এইরুপ দাবি করছেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, ঠিক তখনই সেই মালদারই গাজোলে আদিবাসী সমাজের উন্নয়ন নিয়ে রাজ্যের তৃনমূল ও কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করে ঝাড়খন্ড দিশম পার্টীর কেন্দ্রীয় সভাপতি সালখান মুর্মু বলেন, “2019 সালের লোকসভা ভোটে মমতা দিদির সমস্যা রয়েছে। তাই এখন আদিবাসীদের কথা মনে করে সরকারের টাকায় কিছু দালাল নিয়ে তাঁরা হবিবপুরে এই আদিবাসী দিবসের মজা ওড়াচ্ছেন।” এদিন আদিবাসীদের প্রতি বঞ্চনার জন্য সব রাজনৈতিক দলের প্রতি ক্ষোভ উগরে সালখান মুর্মু বলেন, “যারা আদিবাসীদের কথা ভাববে, আদিবাসীরা তাঁদেরকেই ভোট দেবে।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!