এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > কালিয়াগঞ্জ উপনির্বাচন – “কি ফ্যাক্টর” হতে চলেছে প্রার্থীদের ব্যক্তিগত ইমেজ? এগিয়ে কে?

কালিয়াগঞ্জ উপনির্বাচন – “কি ফ্যাক্টর” হতে চলেছে প্রার্থীদের ব্যক্তিগত ইমেজ? এগিয়ে কে?


 

হাতে আর মাত্র কিছুদিন। তারপরই অনুষ্ঠিত হবে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভার উপনির্বাচন। লোকসভা নির্বাচনের ডামাডোলের পর প্রায় প্রতিটা রাজনৈতিক দলই নিজেদের শক্তি পরীক্ষা করে নিতে চাইছে। জানা গেছে, আগামী 25 নভেম্বর এই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচন হবে। তাই তার আগে ইতিমধ্যেই সমস্ত রাজনৈতিক দল তাদের প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়ে প্রচারের ময়দানে নেমে পড়েছে।

প্রসঙ্গত, এই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে কংগ্রেসের বিধায়ক ছিলেন প্রমথনাথ রায়। কিন্তু তাঁর মৃত্যুর কারণে এই কেন্দ্রে উপনির্বাচন সংগঠিত হচ্ছে। তাই কংগ্রেস এখানকার নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার মূহূর্তেই তাদের প্রার্থী হিসেবে সেই প্রমথনাথ রায়ের মেয়ে ধীতশ্রী রায়ের নাম ঘোষণা করে দিয়েছে। অন্যদিকে তৃণমূলের তরফে তপন দেব সিংহ এবং বিজেপির তরফে কমল সরকারের নাম প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনে এবার ব্যক্তি ইমেজ দেখেই লড়াই হবে। আর সেই লড়াই হবে মূলত তিনটি রাজনৈতিক দল, কংগ্রেস, তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। কিন্তু কার ব্যাক্তি ইমেজ কেমন! সংগঠন থাকলেও কোন ব্যক্তিত্ব কাকে মাত দেবে কালিয়াগঞ্জে? জানা যায় কংগ্রেসের প্রার্থী ধীতশ্রী রায় অত্যন্ত মিষ্ট স্বভাবের মানুষ। বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার পাশাপাশি তিনি একজন নৃত্যশিল্পী এবং সংগীতশিল্পীও বটে। তাই সামাজিকভাবে তার একটা পরিচিতি রয়েছে।

পাশাপাশি বাবা বিধায়ক থাকার কারণে বিভিন্ন সময় পিতার সঙ্গে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বেরিয়েছেন ধীতশ্রীদেবী। তাই সে দিক থেকে এলাকার মানুষের অনেকটাই কাছাকাছি পৌঁছে যাবেন এই কংগ্রেস প্রার্থী বলে মত একাংশের। অন্যদিকে তৃণমূলের প্রার্থী তপন দেব সিংহরও জনপ্রিয়তা কিছু কম নেই।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, স্বচ্ছ ভাবমূর্তির লোক হিসেবে পরিচিত তপনবাবুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তোলার মত বিরোধীদের তরফে কারও সাহস নেই। পাশাপাশি পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে পঞ্চায়েত সমিতির সহকারি সভাধিপতি থাকা এই তপনবাবুর অনেক রাজনৈতিক অভিজ্ঞতাও রয়েছে। এদিকে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র দখল করা বিজেপিও এই কালিয়াগঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারা এখানে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছে সরল কৃষক পরিবারের লোক হিসেবে পরিচিত কমল সরকারকে। প্রায় এই তিনটি রাজনৈতিক দলই দলীয় প্রার্থীর জয়ের ব্যাপারে প্রবল আত্মবিশ্বাসী।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, একটি নির্বাচনে যদি সকল প্রার্থী সচ্চরিত্রের হয়, তাহলে তা জনগণের কাছে অত্যন্ত ভালো ব্যাপার। কিন্তু সেক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলগুলো অত্যন্ত বিপাকে পড়ে যায়। কারণ রাজনৈতিক পটভূমিকায় দাঁড়িয়ে সরল প্রার্থী হলেও বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে এখন কালিয়াগঞ্জ বিধানসভায় কাকে জনগন সমর্থন করবে, তা বোঝার উপায় নেই। তাই শেষ পর্যন্ত কার দখলে থাকে এই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা, তার দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!