এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ভর সন্ধ্যেবেলায় কলকাতার অদূরে পার্টি অফিসে শুট আউট অল্পের জন্য প্রাণে বাচঁলেন তৃণমূল নেতা

ভর সন্ধ্যেবেলায় কলকাতার অদূরে পার্টি অফিসে শুট আউট অল্পের জন্য প্রাণে বাচঁলেন তৃণমূল নেতা

Priyo Bandhu Media

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় সন্ত্রাসের আবহ তৈরি হয়েছে। রাজনৈতিক মহলের কর্তাব্যক্তিরাও এক বাক্যে তা স্বীকার করে নিচ্ছেন। কখনও তৃণমূল বনাম বিজেপির লড়াই, আবার কখনও বা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের লড়াই, প্রায় প্রতিটা ইস্যুতেই এখন গুলি এবং বোমা প্রধান অস্ত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এমতাবস্থায় ফের মধ্যমগ্রামে তৃণমূলের পার্টি অফিসে শুটআউটের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল।

জানা যায়, মধ্যমগ্রাম পৌরসভার 8 নম্বর ওয়ার্ড যুব তৃনমূলের সভাপতি বিনোদ সিং ওরফে রঙ্কুর বাড়ি সেই শহরেরই 7 নম্বর ওয়ার্ডের দুর্গামন্ডপ এলাকায়। কিন্তু তিনি 8 এবং 9 নম্বর ওয়ার্ডের সংযোগস্থলে কদমতলা বাজারে একটি পার্টি অফিসে রোজ সন্ধ্যায় তার অনুগামীদের নিয়ে বসেন।

এদিনও তার অন্যথা হয়নি। এদিন রাত আটটা নাগাদ পার্টি অফিসের পাশের একটি চপের দোকানে তিনি খাবারের অর্ডার দেন। আর এরপরই রাত আটটা কুড়ি মিনিটে কিছু দুষ্কৃতী পার্টি অফিসের সামনে এসে অতর্কিতে বোমাবাজি করতে করতে সেই পার্টি অফিসে ঢুকে পড়ে বলে অভিযোগ ওঠে। আর সেই সময়ই বিনোদ সিং অফিস থেকে বেরোনোর চেষ্টা করলে দুষ্কৃতীরা তাকে লক্ষ্য করে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়। আর এরই মধ্যে একটি গুলি তার মাথায় লাগলে তিনি সেখানেই লুটিয়ে পড়েন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা নিজেদের জীবনের বাজি রেখে এক দুষ্কৃতীকে ধরার চেষ্টা করলেও সেই দুষ্কৃতী চম্পট দেয়। তবে তারা তাদের একটি পাইপগান রেখে গেছে। এদিকে গুরুতর আহত অবস্থায় তৃণমূল যুব নেতা বিনোদ সিংকে প্রথমে তৃণমূল কর্মীরা স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে পরে তাকে বারাসতের নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। কিন্তু কেন এই ঘটনা ঘটল! এর পেছনে কি বিরোধী দলের ষড়যন্ত্র, নাকি নিজের দলেরই একশ্রেণীর হাত রয়েছে! তা নিয়েই এখন শুরু হয়েছে তদন্ত।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে এই বিনোদ সিংয়ের বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর লোকেরা তার সাথে ঝামেলা করেছে। ফলে একাংশের দাবি, বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর লোকেদের দারাই হিংসার শিকার হয়েছেন বিনোদ সিং। এদিন এই প্রসঙ্গে মধ্যমগ্রামের তৃণমূল বিধায়ক রথীন ঘোষ বলেন, “পার্টি অফিস লক্ষ্য করে বোমা ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। জখম যুব তৃণমূল নেতাকে নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছে।”

এদিকে ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় অশান্তিস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী। তাদের দাবি, প্রোমোটারি ব্যবসা নিয়ে ঝামেলার জন্যই এই ঘটনা ঘটেছে। সবমিলিয়ে এবার ভর সন্ধ্যায় মধ্যমগ্রামে তৃণমূল যুব নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি তীব্র আতঙ্ক তৈরি করে দিল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!