এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বড় সিদ্ধান্ত কলকাতা পুরসভায় – ৪ হাজার খালি পদের মধ্যে ২ হাজারে স্থায়ী নিয়োগ, জানুন বিস্তারিত

বড় সিদ্ধান্ত কলকাতা পুরসভায় – ৪ হাজার খালি পদের মধ্যে ২ হাজারে স্থায়ী নিয়োগ, জানুন বিস্তারিত

Priyo Bandhu Media

লোকসভা ভোটের দিকে নিশানা করেই একলম্ফেই ২ হাজার স্থায়ী কর্মী নিয়োগ করতে চলছে কোলকাতা পুরসভা। প্রথম ধাপে প্রায় ১০০০ কর্মী নিয়োগ করা হবে। গ্রুপ ডি পদের ওই নিয়োগ হবে সরাসরি। অর্থাৎ কোনো লিখিত পরীক্ষা বা ইন্টারভিউ ছাড়াই এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চায় পুরসভা। তবে তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে রাজ্যসরকারের অনুমোদনের উপরে। চলতি সপ্তাহে পুরসভার মেয়র পরিষদের এই বৈঠক হয়েছে।

সেখানে আলোচনা প্রসঙ্গে জানা যায়,দীর্ঘদিন মজদুর পদে কোনো নিয়োগ হয়নি। শহরের আয়তন এবং পরিধি বাড়লেও এই সংক্রান্ত পদে নিয়োগ নিয়ে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এদিন মেয়র পরিষদের বৈঠকে এই কর্মী নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়টির অনুমোদন মেলায় সেই প্রস্তাবটি পাঠানো হয় পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরে। এই সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রীত্বের দায়িত্বেই রয়েছেন খোদ মেয়র ফিরহাদ হাকিম। কাজেই এই পুরসভার গ্রুপ ডি-পদে নিয়োগ সংক্রান্ত ব্যাপারে কোনো সমস্যা হবে না বলেই মনে করছেন পুরকর্তাদের একাংশ।

 

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

পুরসভার এদিনের বৈঠকে উঠে এসেছে বেশ কিছু তথ্য। সেই রিপোর্ট অনুযায়ী,কঠিন বর্জ্য অপসারণের জন্য পুরসভার মজদুর, পরিবেশবন্ধু এবং ডোম মিলিয়ে মোট ১১৭১১টি পদ রয়েছে। এই মুহূর্তে ৭৯৬৫ টি পদে কর্মী রয়েছে। অর্থাৎ এখনো ৩৭৪৬ টি খালি পদ পড়ে রয়েছে। এই শূন্যপদ তৈরি হয়েছে পুরসভার ১৪১ টি ওয়ার্ডে। সম্প্রতি কোলকাতার সঙ্গে জোকা এলাকার আরো তিনটি ওয়ার্ড জুড়ে যাওয়ায় ওয়ার্ডের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৪। এই ওয়ার্ডগুলোকে পরিচ্ছন্ন রাখার প্রয়োজনে আপাতত প্রায় ৪০০০ খালি পদের মধ্যে ২০০০ জন স্থায়ী কর্মী নিয়োগ করতে চাইছে কোলকাতা পুরসভা।

সম্প্রতি ফিরহাদ হাকিম নয়া মেয়রের দায়িত্বে আসার পরই কোলকাতা শহরকে আরো জঞ্জালমুক্ত এবং পরিচ্ছন্ন করে তোলার কথা দিয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি পালনের প্রয়াসেই কোমর বেঁধে কর্মযজ্ঞে নেমে পড়েছেন তিনি,এমনটাই দাবী তৃণমূলের। কোলকাতা পুর প্রশাসন জানিয়েছে,মজদুরদের প্রাথমিক কাজই হল শহরের নোংরা তোলা এবং ফেলা। তাই জঞ্জালমুক্ত কোলকাতা গড়ে তুলে শহরকে ঢেলে সাজানোর জন্যে কঠিন বর্জ্য প্রক্রিয়াকরণ বিভাগে প্রচুর কর্মী প্রয়োজন। আর সেজন্যেই মজদুর নিয়োগ নিয়ে সক্রিয়তা বাড়ানো হয়েছে।

এদিনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে,গত দু’বছরে কতজন মজদুর, পরিবেশবন্ধু এবং ডোম অবসর নিয়েছেন তাঁদের সংখ্যা গননা করা করা হবে প্রথমে। তারপর সেই অনুযায়ী প্রথম ধাপে নিয়োগের তালিকা তৈরি হবে। একেবারে পুরো শূন্যপদ পূরণ না করে গতি শ্লথ করে প্রথম দফায় ২০০০ কর্মী নিতে চাইছেন পুর কর্তারা। এ প্রসঙ্গে পুরসভার এক আধিকারিক জানান,আগে মজদুর নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা তেমন কিছু ছিল না। শুধু স্বাক্ষর হলেই হতো। কিন্তু এবার নিয়োগের ক্ষেত্রে পুরানো নিয়ম মানস হবে কিনা সে ব্যাপারে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি এখনো।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!