এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরস্কার পাওয়া নয় দেওয়ার লড়াইয়ে জমজমাট কলকাতা পুরসভার অন্দরমহলের রাজনীতি

পুরস্কার পাওয়া নয় দেওয়ার লড়াইয়ে জমজমাট কলকাতা পুরসভার অন্দরমহলের রাজনীতি

পুজোকে কেন্দ্র করে উত্তর কলকাতা বনাম দক্ষিণ কলকাতার লড়াই প্রায় প্রত্যেকেই দেখেছে। ঠিক কার পুজোর সেরা সেরা তা নিয়ে একে অপরের সাথে জোর তরজায় জড়িয়ে পড়েছিলেন খোদ শাসকদলের নেতা মন্ত্রীরাও। কিন্তু পুজো শেষের পর সেই লড়াইয়ে ইতি পড়লেও এবার কলকাতা পৌরসভার উদ্যোগে এই দুর্গোৎসবের জন্য বিভিন্ন পূজা মন্ডপকে দেওয়া পুরস্কার নিয়ে কোন্দল লাগার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কলকাতা পুরসভায় তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পরই শহরের সমস্ত শ্রেষ্ঠ পুজো প্রতিমা এবং মন্ডপ নিয়ে একটি প্রতিযোগিতা চালু করা হয়েছিল। পৌরসভার পার্ক উদ্যান দফতরের উদ্যোগে এই প্রতিযোগিতার নাম দেওয়া হয়েছিল “কলকাতাশ্রী”।

যার মূল দায়িত্বে রয়েছেন পৌরসভার মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার। তবে কলকাতাশ্রীর সাথে সাথেই এই চলতি বছর থেকে মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়াতে একটি নতুন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে পুরসভা। যার নাম দেওয়া হয়েছে “স্বাস্থ্যবান্ধব”।

আর এর দায়িত্বে রয়েছেন পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ। কিন্তু কলকাতা পুরসভার এই দুই অনুষ্ঠান একদিনে না করে পৃথক পৃথক ভাবে করায় এবার উঠতে শুরু করেছে অনেক প্রশ্নই। জানা গেছে, “কলকাতাশ্রীর” যে পুরস্কার তা আগামী 15 ই নভেম্বর শহরের 36 টি পুজো কমিটিকে মোহরকুঞ্জে 50 হাজার টাকা মূল্যের একটি আর্থিক পুরস্কার মারফত উদ্যোক্তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

অন্যদিকে এই পুরসভারই “স্বাস্থ্যবান্ধব” প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আগামী 22 শে নভেম্বর রবীন্দ্রসদনে। সূত্রের খবর, প্রথম বছরেই এই স্বাস্থ্যবান্ধব পুরস্কার পাচ্ছে 26 টি পুজো কমিটি। প্রত্যেককেই 30 হাজার টাকা করে আর্থিক মূল্য দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

কিন্তু একদিন এই এই দুটো অনুষ্ঠান করলে তো অনেকাংশেই খরচ কমে যেত কলকাতা পুরসভার? কিন্তু তা না করে এইভাবে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠান করে কি আদতে নিজেদের দপ্তর তথা ব্যক্তিগত শক্তি প্রদর্শন করতে চাইছেন কলকাতা পুরসভার দুই মেয়র পরিষদ সদস্য?

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

একাংশের মত এই স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ দক্ষিণ কলকাতার আর অন্যদিকে উদ্যান বিভাগের দেবাশিস কুমার উত্তর কলকাতার বাসিন্দা। তাই ঐতিহ্যের দিক থেকে দুই বিপরীত মেরুর দুই কর্তা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান কেউ পৃথক পৃথক ভাবে করতে চাইছেন। তবে এই ব্যাপারে মুখে একটি রাও কাটেনি অতীন ঘোষ এবং দেবাশিস কুমার। তাহলে কি শেষ পর্যন্ত এই কলকাতা স্ত্রী এবং স্বাস্থ্যবান্ধব পুরস্কারের আড়ালে লুকিয়ে আছে অতীন বনাম দেবাশিসের লড়াই! জল্পনা তুঙ্গে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!