এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কলকাতার বুকেই রাজ্যের এক বিধায়কের দাঁতের চিকিৎসার খরচ দেড় লক্ষ টাকা! চোখ কপালে সবার!

কলকাতার বুকেই রাজ্যের এক বিধায়কের দাঁতের চিকিৎসার খরচ দেড় লক্ষ টাকা! চোখ কপালে সবার!

 

প্রায় বহুদিন আগেই বিধানসভায় পাস হয়েছিল ক্লিনিক্যাল এস্টাবলিশমেন্ট বিল। যে বিল পেশ করে বেসরকারি হাসপাতালের বাড়বাড়ন্ত রোধের কথা জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি সেই সময় বিল পেশের বক্তব্য রাখতে গিয়ে অনেক বিধায়কের চিকিৎসার খরচ আকাশচুম্বী বলেও মুখ্যমন্ত্রীর গলায় শোনা গিয়েছিল। আর এবার দাঁতের চিকিৎসার জন্য রাজ্যের এক বিধায়ক 1 লক্ষ 56 হাজার টাকা বিল পেশ করেছেন বলে একটি অনুষ্ঠানে জানালেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, শুক্রবার শিয়ালদার আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজ তথা ভারতের দন্ত চিকিৎসার শতবর্ষ উদযাপন সমারোহ এবং ইন্ডিয়ান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছিল। যেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী, সর্বভারতীয় আইডিএ সভাপতি ডাঃ জনকরাজ সবরওয়াল সহ অন্যান্যরা। আর সেই অনুষ্ঠানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের এক বিধায়কের দাঁতের চিকিৎসার জন্য দেড় লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে উষ্মা প্রকাশ করেন রাজ্য বিধানসভার অধ্যক্ষ।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “প্রাইভেটে এক-একটি দাঁতের রুট ক্যানেল করতে 56 হাজার টাকা লাগে বলে জানি। মুখ্যমন্ত্রী বিনামূল্যে চিকিৎসা সুবিধায় সরকারি ক্ষেত্রে সবই ফ্রি। অথচ একজন দাঁতের ডাক্তার কটা দাঁতের রুট ক্যানেল করতে 1 লক্ষ 56 হাজার টাকা নিলেন। কিভাবে এই বিল হল, দেখা হচ্ছে।”

তবে রাজ্যের কোন বিধায়কের ক্ষেত্রে এই বিপুল বিল হয়েছে! তা অবশ্য এদিন খোলাসা করেননি অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে কলকাতারই যে কোনো এক হাসপাতাল এই বিল নিয়েছে, তা অবশ্য স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। আর অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এক বিধায়কের দাঁতের রুট ক্যানেল করবার জন্য দেড় লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে এই অনুষ্ঠানে তুলে ধরায় নানা মহলে তৈরি হয়েছে গুঞ্জন।

এদিন এই প্রসঙ্গে আইডিএর রাজ্য সম্পাদক এবং আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজের চিকিৎসক রাজু বিশ্বাস বলেন, “বিধানসভা চলাকালীন একবার নজন বিধায়ক এসে আর আহমেদে উপস্থিত হয়েছিলেন। আসার কথা ছিল চারজনের। বাকি পাঁচজন এতটাই দাঁতের যন্ত্রণায় কষ্ট পাচ্ছিলেন যে, স্পিকারের অনুমোদন নেওয়ার মত অবস্থা ছিল না। আমরাও বরাবর চেষ্টা করে গিয়েছি সর্বস্তরের মানুষকে সেরা পরিষেবা দেওয়ার।” ত

বে যে যাই বলুন না কেন, যেভাবে কলকাতার বুকে এক বিধায়কের দাঁতের চিকিৎসা করাতে গিয়ে দেড় লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে এই অনুষ্ঠানে তুলে ধরলেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, তাতে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় বড়সড় প্রশ্ন উঠে গেল বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!