এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কলকাতাকে করোনা মুক্ত করতে চীনের উহানের দেখানো পথেই চলতে চায় রাজ্য সরকার

কলকাতাকে করোনা মুক্ত করতে চীনের উহানের দেখানো পথেই চলতে চায় রাজ্য সরকার


সারা ভারতের সাথে সাথে পশ্চিমবঙ্গেও করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়েছে। একের পর এক করানো আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে এবং সোমবার এ রাজ্যে প্রথম করোনা আক্রান্তের মৃত্যু ঘটেছে। এই পরিস্থিতিতে করোনার সংক্রমণ আটকাতে এবার কলকাতা পুরসভা বিশেষ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করল। করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি চীনের ইউহান শহরে। তবে মারাত্মক পর্যায়ে করোনা সংক্রমণ পৌঁছে গেলেও চীন সেই জায়গা থেকে এখন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে বলে খবর।

এবং এই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে চীনের রাজপথে ব্যাপকহারে সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইড  ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। এবার চীনের পথই অনুসরণ করতে চলেছে কলকাতা পুরসভা। মঙ্গলবার থেকে কলকাতার বিভিন্ন রাস্তায় কুড়িটি বড় মাপের জেট-স্প্রে গাড়ি থেকে জীবাণুনাশক ছড়ানো হবে বলে খবর। রাসায়নিক হাইপোক্লোরাইড পুরসভার হাতে পৌঁছে যাবে বলে জানিয়েছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। জেট-স্প্রে গাড়ি ছাড়াও ফগিং মেশিন দিয়েও রাসায়নিক স্প্রে করা হবে বলে জানা গেছে।

প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় নিয়ম করে মহানগরের বিভিন্ন জায়গায়, যথা- হাসপাতাল, স্বাস্থ্য দপ্তর, ঘন জনবসতি এলাকায় করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে রাসায়নিক স্প্রে করা হবে বলে জানা গেছে। এ প্রসঙ্গে মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, ‘দিনকয়েক আগে মুখ্যমন্ত্রী দলীয় রাজ্যসভার সাংসদদের তহবিলের তরফে ২০টি জেট-স্প্রে গাড়ি দিয়েছিলেন পুরসভাকে। মূলত রাজপথ ধোয়া ও রাস্তার ডিভাইডারের গাছে জল দেওয়ার জন্য ওই গাড়িগুলি ব্যাবহার হওয়ার কথা।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু এবার ওই গাড়ির জলে সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইড মিশিয়ে শহরের বিভিন্ন ঘনবসতি এলাকায় ছড়ানো হবে।’ জেট-স্প্রে গাড়ি দিয়ে প্রথমে এসএসকেএম, বাঙ্গুর, বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল থেকে শুরু করে বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হবে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে, যে ফগিং মেশিন পুরসভা বেশ কয়েক বছর আগে বাতিল করে দিয়েছিল, এবার সেই ফগিং মেশিন ব্যবহার করা হবে করোনা ভাইরাস ধ্বংসের কাজে। এই যন্ত্র দিয়ে জীবাণুনাশক সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইড স্প্রে করা হবে বলে জানা গেছে।

ইতিমধ্যেই কুড়িটি বিশেষ ধরনের ফগিং মেশিন নিয়ে আসা হয়েছে বলে খবর। শোনা যাচ্ছে, এই ফগিং মেশিন দিয়ে পঞ্চসায়রের সেই বহুতল, যেখানে করোনা আক্রান্তকে পাওয়া গিয়েছিল সেখানে বিভিন্ন ফ্লোরে স্প্রে করা হতে পারে। এই কাজে সাহায্য করার জন্য পুরসভার তরফ থেকে একটি বাসে করে বিভিন্ন ওয়ার্ডে পুরসভার জঞ্জাল সাফাই কর্মীদের পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। এই ঘটনাগুলো থেকে পরিষ্কার, কলকাতা পুরসভা এই মুহূর্তে কলকাতাকে করোনা সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করতে ভালো রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

বিশেষজ্ঞরা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ রুখতে একমাত্র দাওয়াই সর্তকতা ও সচেতনতা। অক্ষরে অক্ষরে পালন করছে এই কথা কলকাতা পুরসভা। এ ব্যাপারে নিশ্চিত করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের বাকি রাজ্যের দিকে নজর ঘোরালে অন্য চিত্র চোখে পড়ছে। লকডাউনের মধ্যেও লোকের জমায়েত চোখে পড়ছে। জীবাণুনাশক দিয়ে স্প্রে এখনো পর্যন্ত অন্য কোন রাজ্যে চোখে পড়েনি, তবে রাজনৈতিক মহলের আশা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ব্যাপারে খুব শীঘ্রই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!