এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অবসরের পরেও রাজ্য সরকার মেটায়নি ন্যায্য প্রাপ্য, কড়া নির্দেশিকা কলকাতা হাইকোর্টের

অবসরের পরেও রাজ্য সরকার মেটায়নি ন্যায্য প্রাপ্য, কড়া নির্দেশিকা কলকাতা হাইকোর্টের

পুলিশের সঙ্গী হিসাবে যারা গোটা নিরাপত্তা ব্যাবস্থাকে সামাল দেওয়ার চেষ্টা করতেন সেই সমস্ত এনভিএফরা ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই নিয়ে এখন কার্যত উধাও হয়ে ওঠার জোগাড়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 1949 সালের “দি ওয়েস্ট বেঙ্গল ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার ফোর্স অ্যাক্ট” অনুযায়ী এই এনভিএফদের নিয়োগ করা হত। আর এবার সেই এনভিএফদের একাংশ কোলকাতা হাইকোর্টে অভিযোগ করছেন।

সূত্রের খবর, এই এনভিএফদের 10 জন সম্প্রতি কোলকাতা হাইকোর্টে অভিযোগ জানিয়ে বলেন যে, অবসর গ্রহনের পরও তাদের কেউ নিজেদের প্রাপ্য অর্থ পাননি। আর অভিযোগকারীদের এহেন বক্তব্য শুনেই বিচারপতি নির্দেশ দেন, অবিলম্বে মামলাকারীদের প্রাপ্য অর্থ রাজ্যকে মেটাতে হবে।

হোয়াটস্যাপের কিছু টেকনিক্যাল অসুবিধার জন্য আমরা ধীরে ধীরে হোয়াটস্যাপ সাপোর্ট বন্ধ করে দিয়ে, পরবর্তীকালে শুধুমাত্র Telegram অ্যাপেই নিউজের লিঙ্ক শেয়ার করব

তাই আপনাদের কাছে একান্ত অনুরোধ – প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর নিয়মিত ভাবে পেতে হলে Telegram অ্যাপটি ইনস্টল করুনআমাদের Telegram গ্রূপে যোগ দিন। যাঁরা Telegram-এ নতুন, ভয় পাবেন না – এটি হোয়াটস্যাপের মতোই সমস্ত ফিচার যুক্ত এবং আরো আরো সহজে ব্যবহার করা যায়।

যোগ দিন আমাদের Telegram Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
আর এখনও যাঁরা আমাদের WhatsApp Group-এ যোগ দিতে চান, তাঁরা ক্লিক করুন এই লিঙ্কে (কিন্তু, মনে রাখবেন এই হোয়াটস্যাপ সাপোর্ট আমরা হয়ত খুব বেশিদিন আর চালু রাখব না)

জানা গেছে, রাজ্যের যেকোন প্রান্তের যেকোন স্থায়ী বাসিন্দা এই বাহিনীতে যোগ দিয়ে সদস্য হয়ে আইন-শৃংখলার কাজ করতে পারবে। আর মূলত এই বাহিনীর সদস্য করবার জন্য মূল দায়িত্ব পালন করে থাকে রাজ্য সরকারই। কিন্তু সম্প্রতি এই ব্যাপারে নির্দিষ্ট প্রাপ্য বেতন না পেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন কিছু এনভিএফরা।

মামলাকারীদের আইনজীবী সুশান্ত পাল আদালতকে জানান, নদীয়া ও মুর্শিদাবাদ জেলার বিভিন্ন জায়গায় অস্থায়ী এনভিএফ হিসেবে এই মামলাকারীরা কাজ করেছেন। আর এদের মধ্যে প্রায় প্রত্যেকেরই কাজের মেয়াদ 2014 থেকে 2016 সালের মধ্যে শেষ হয়ে গেলেও তারা এখনো প্রাপ্য অর্থ পাননি।

এদিকে মামলাকারীদের বক্তব্য শুনে আদালত নিজের রায়ে জানিয়েছে, মামলাকারীদের বয়স 60 বছর অতিক্রান্ত হওয়ায় এরা অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। কিন্তু গত 2008 সালের 15 ই সেপ্টেম্বর জারি হওয়া গভারমেন্ট অর্ডার অনুযায়ী এদের প্রত্যেকেরই এক্সগ্রাসিয়া প্রাপ্য। অবসর নেওয়ার সময় তাদের প্রত্যেকেই অর্থ দিয়ে দেওয়া নিয়ম থাকলেও তা না হওয়ায় এখন তার সাথে ক্ষতিপূরণ হিসেবে কিছু অতিরিক্ত টাকা তাদের প্রাপ্য।

Top
Close
error: Content is protected !!