এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিমানবন্দর ‘সোনা-কাণ্ডে’ বড়সড় নির্দেশিকা কলকাতা হাইকোর্টের – জানুন বিস্তারিত

বিমানবন্দর ‘সোনা-কাণ্ডে’ বড়সড় নির্দেশিকা কলকাতা হাইকোর্টের – জানুন বিস্তারিত

কলকাতা বিমানবন্দরে ‘সোনা-কান্ড’ নিয়ে আপাতত তীব্র চাপান-উতোর রাজ্য-রাজনীতিতে। এমনকি সেই বিতর্কের ঝড় রাজ্যের গন্ডি ছাড়িয়ে চলে গেছে জাতীয় পর্যায়ে। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরে দাবি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো-পত্নী তথা রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অঘোষিত দু-নম্বর নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজির বন্দ্যোপাধ্যায় গত ১৫ ই মার্চ বিদেশ থেকে নিজের বান্ধবীকে নিয়ে দেশে ফিরছিলেন। তাঁদের কাছে ছিল মোট সাতটি ব্যাগ এবং তার মধ্যে অন্তত দুটি ব্যাগে নাকি নিয়ম-বহির্ভূতভাবে সোনা আনা হচ্ছিল।

ওই সব সংবাদমাধ্যমে আরও দাবি করা হয়েছে, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিমানবন্দরে কাস্টমসের অফিসাররা সেইসব ব্যাগ তল্লাশি করতে চাইলে, সেখানে রুজিরদেবী নিজেকে প্রভাবশালী বলে পরিচয় দিয়ে কাস্টমসের অফিসারদের বাধা দেন। কিন্তু, কাস্টমসের অফিসারেরা সেইসব কথা না শুনে তল্লাশি চালিয়ে যেতে চাইলে নাকি রাজ্য পুলিশ গিয়ে বাধা দেয় এবং রুজিরাদেবী ও তাঁর বান্ধবীকে দ্রুত বিমানবন্দর থেকে বার করে নিয়ে যায়। কাস্টমসের অফিসারদের সঙ্গেও রাজ্য পুলিশ ‘দুর্ব্যবহার’ করে বলে অভিযোগ ওঠে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই ঘটনার প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায়, অভিষেকবাবু অবশ্য জানান, এইসব ঘটনাই মিথ্যা। কেন্দ্র সরকার তাঁকে, তাঁর পরিবারকে ও তাঁর দলকে বিপাকে ফেলতে এইসব মিথ্যা রটনা করছে। এমনকি, যে সব সংবাদমাধ্যম এইসব খবর প্রচার করছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি। কিন্তু, কলকাতা বিমানবন্দরের ঘটনার ওপর ভিত্তি করে গত ২৬ শে মার্চ শুল্ক দফতর সমন পাঠায় রুজিরাদেবীকে এবং তাঁকে ৮ ই এপ্রিলের মধ্যে হাজিরা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এর বিরুদ্ধে রুজিরাদেবী কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চে আবেদন করেন।

সেখানে বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজ তাঁকে শুল্ক দফতরের সামনে হাজিরা দেওয়ার পাশাপাশি, শুল্ক দফতরকেও নির্দেশ দেন এখনই রুজিরাদেবীর বিরুদ্ধে কোনও ‘কড়া’ পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না। কিন্তু, এই রায়ে খুশি না হয়ে রুজিরাদেবী পুনরায় কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেন। সেখানে আজ শুনানির শেষে কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়েছে, আপাতত রুজিরাদেবীকে শুল্ক দফতরের সামনে হাজিরা দিতে হচ্ছে না। এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২০ শে জুন, তার আগে রুজিরাদেবী ও শুল্ক দফতর – উভয়পক্ষকেই হলফনামা দিয়ে নিজেদের বক্তব্য জানাতে হবে। কলকাতা হাইকোর্ট সেই শুনানির পর এই নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!