এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কবে কিভাবে সারা দেশজুড়ে হবে এনআরসি? স্পষ্ট করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

কবে কিভাবে সারা দেশজুড়ে হবে এনআরসি? স্পষ্ট করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

লোকসভা ভোটের পর থেকেই কেন্দ্রে বিজেপি নেতৃত্ব এনআরসি নিয়ে তৎপর হয়েছে। এনআরসি বা নাগরিক পঞ্জিকার প্রথম পর্ব শুরু হয় আসাম থেকে‌। এনআরসি হওয়ার পর দেখা যায় আসাম থেকে 19 লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে। যার মধ্যে 11 লক্ষ হিন্দু বলে দাবি করা হচ্ছে। এই ঘটনায় সারা দেশে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়।

এনআরসি নিয়ে শুধু এদেশের না, ভারতবর্ষের প্রতিবেশী দেশগুলোতেও যথেষ্ট শংকার কাজ করছে। কারণ রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি অনুযায়ী, অনুপ্রবেশ বন্ধ হলে প্রতিবেশী দেশের জনসংখ্যা নিয়ে তাদেরকে যথেষ্ট চাপে পড়তে হবে। আসামে এনআরসি থেকে হিন্দু বাদ পড়ার ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই পশ্চিমবঙ্গে গুজব ছড়াতে শুরু করেছে। আর সেই গুজবে কান দিয়ে এই রাজ্যের সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়ছে। একের পর এক আত্মহত্যার ঘটনা সামনে আসছে।

আসামের এনআরসি নিয়ে এক সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানালেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আসামে এনআরসি হয়েছে। ভবিষ্যতে ভারতবর্ষের যেখানেই এনআরসি চালু হোক না কেন, আসামের এনআরসি সংক্রান্ত ভুল ত্রুটি গুলি বিবেচনা করেই এনআরসি চালু করা হবে। তিনি আরও জানিয়েছেন, আসামে এনআরসি চালু করতে গিয়ে যে অভিজ্ঞতা হয়েছে তা পরবর্তীতে অন‍্যত্র এনআরসি চালু করতে সাহায্য করবে।

অমিত শাহ এদিন জানিয়েছেন, সারা দেশের জন্য লিক প্রুফ এনআরসি আনা হবে। আসামে এনআরসি চালু করতে গিয়ে বিভিন্ন ফাঁকফোকর দেখা যায়। পরিকল্পনামাফিক এবার সেই ফাঁকফোকর বন্ধ করতে উদ্যোগী হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন রাখা হয়, এনআরসি কি কোনো রাজনৈতিক অস্ত্র? নাকি এনআরসির প্রয়োগে রাজনীতিতে কোনো সুবিধা হবে? অমিত শাহ উত্তরে বলেন এনআরসি চালু তাঁরা করেননি, সুপ্রিম কোর্ট করেছে। এনআরসি কি সারা দেশে চালু হবে? এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, সঠিক সময়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় এনআরসি চালু হবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এর আগেও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানিয়েছিলেন, ভারতে অনুপ্রবেশকারীদের ভারত থেকে বিতাড়িত করা হবে। সেই অনুযায়ী 31 আগস্ট এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। সেই তালিকা থেকে 19 লক্ষ বাসিন্দার নাম বাদ গেছে। আসামে এনআরসি হওয়ার পর অমিত শাহ আশ্বস্ত করেছিলেন দেশবাসীকে, শুধুমাত্র অনুপ্রবেশকারীদেরই দেশের বাইরে পাঠানো হবে।

যদিও বিজেপি সূত্রের খবর, অসমে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা বার হওয়ার পর রাজ্য বিজেপির একাংশ চূড়ান্ত হতাশায় ভুগছেন। কারণ অসমের জনসংখ্যার 18 শতাংশ বাঙালি হিন্দু। আবার তাঁরাই বিজেপির সবথেকে বড় সমর্থক। আসামের বিজেপি দলের বিধায়ক শিলাদিত্য দেব অভিযোগ করে বলেছিলেন, এনআরসির ফলে হিন্দুরা দূর হয়েছে এবং মুসলিমদের সাহায্য করা হয়েছে।

তবে এনআরসি নিয়ে প্রথম থেকেই বিজেপি সরকার বলে এসেছে, অনুপ্রবেশ ঠেকাতে একমাত্র এনআরসি হাতিয়ারই প্রয়োজন। অনুপ্রবেশের ফলে বিভিন্ন রাজ্যের প্রতিবেশী দেশ থেকে অনুপ্রবেশকারীরা ভারতে এসে সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ চালাচ্ছে। যা আটকাতে এনআরসি ছাড়া গতি নেই। এনআরসি দিয়েই অনুপ্রবেশকারীদের’ দেশ ছাড়া করা হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আপাতত এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব পরবর্তী কি সিদ্ধান্ত নেন সেদিকেই নজর রাখবেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!