এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ক্ষমতার কত কাছে বা দূরে তৃণমূল? সরাসরি ময়দানে নেমে যাচাই করবে টীম পিকে

ক্ষমতার কত কাছে বা দূরে তৃণমূল? সরাসরি ময়দানে নেমে যাচাই করবে টীম পিকে

2019 এর লোকসভা ভোটে তৃণমূল রাজ‍্যে খুব একটা ভালো ফল করতে পারেনি। অন‍্যদিকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি 2019 এর লোকসভা ভোটে দারুণ তাক লাগানো ফল করে। 2014 থেকে 2019 এর মধ্যে তাঁদের আসন সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় 18 তে। বিজেপির এবারের লক্ষ্য 2021 এর বিধানসভা ভোট। এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই 2019 এর লোকসভা ভোটে বিজয়ের পর তাঁদের আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে। আর সেই আত্মবিশ্বাসকে চির ধরানোর জন্যই তৃণমূলের দুর্বলতাকে আবার পুনরায় সফলতায় ফেরানোর জন্য তৃণমূলের ভোটব‍্যাঙ্কের ধরেন ভোট বিশেষজ্ঞ প্রশান্ত কিশোর।

লোকসভা ভোটে হতাশাজনক ফল করার পর তৃণমূলের তরফ থেকে প্রশান্ত কিশোরকে ভোট কৌশলী হিসাবে দায়িত্ব দেওয়া হয় মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তরফ থেকে।ভোট কৌশলের দায়িত্ব নিয়ে প্রথমেই প্রশান্ত কিশোর দিদিকে বল জনসংযোগ কর্মসূচি চালু করেন। আর এর দ্বারাই তৃণমূল আবার পায়ের তলায় আস্তে আস্তে জমি পেতে শুরু করেছে। এবার প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনা সরাসরি ময়দানে নামার।

অর্থাৎ টিম টিকে এবার সরাসরি তৃণমূলের ব্যাপারে তথ্য তালাশ করতে ভোট ময়দানে নামছে। টিম পিকে এবার গ্রামে গ্রামে ঘুরে তৃণমূলের ব্যাপারে মানুষের কাছে থেকে তথ্য আদায় করবে।ইতিমধ্যে দলের নেতারাও জনমত বোঝার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। সেই সংক্রান্ত্র দলকে রিপোর্ট দিয়েছেন। এবার প্রশান্ত কিশোরের টিমের সদস্যরা নিজেরা খোদ ময়দানে নেমে জনমত বোঝার চেষ্টা করবেন। তৃণমূল দলের প্রতি মানুষের ক্ষোভ কোথায়, ক্ষোভ কেন সবকিছু জানার চেষ্টা করবেন তাঁরা। রাজনৈতিক বিশ্লেষণের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে উপনীত হবেন। যা তৃণমূলের জন্য ভীষণ প্রয়োজন।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এতদিন দিদিকে বল জনসংযোগ কর্মসূচির দ্বারা দলের নেতা মন্ত্রী বিধায়ক সংসদ অন্যান্য জনপ্রতিনিধিরা এলাকায় জনসংযোগ করেছেন। এবার টিম পিকে দেখবে, জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে মানুষের কি মত। তা খতিয়ে দেখা হবে এবং তারপরই পরিস্থিতি বিবেচনা করে সংগঠনে ও দলে নতুন মুখ আনার ব্যবস্থা করা হবে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে যোগ্যতম কে তা স্হির হবে।

উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটের ফলাফল আশানুরূপ না হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করেন। 2014 সালে মোদির লোকসভা নির্বাচনে জয়ের পেছনে যার মস্তিষ্ক ছিল, সেই প্রশান্ত কিশোর এবার পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল দলের দায়িত্বে এসে নতুন নতুন কর্মসূচি প্রয়োগ করেন। দিদিকে বলর পর এবার টিম টিকে নিজেরাই ময়দানে নামছেন জনমত জানার জন্য।

কর্মসূচি সফল করতে গিয়ে প্রশান্ত কিশোর বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছে অনেককে। কোথাও গাফিলতি রয়েছে কিনা, কেউ ফাঁকি মারছেন কি না সবকিছুই নখদর্পণে আছে প্রশান্ত কিশোরের। তাই যখনই কেউ শুনছেন পিকের টিম আসছে, বা পিকে আসছে, সেখানেই বাড়তি উৎসাহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে কর্মসূচি রূপায়ণে। এবার আরেকবার প্রশান্ত কিশোর তাঁর বাহিনী নিয়ে তথ্য তালাশে নামছে।

মোটকথা, পিকের দল এবার আলাদা ভাবে কাজ করে জনমত জানতে চাইছে। কোথায় গাফিলতি রয়েছে, কোথায় ফাঁকি রয়েছে, তা নিরূপনের কি কি চেষ্টা করা যেতে পারে সমস্ত কিছু রিপোর্ট নিয়ে তিনি আলাদাভাবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে কথা বলবেন। আর তারপরেই তৃণমূল দলের পরবর্তী স্ট্র্যাটেজি ঠিক হবে।

সমগ্র বিষয় পর্যবেক্ষণ করে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, তৃণমূল যেভাবে প্ল্যানমাফিক প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে এগিয়ে চলেছে, তা দেখে বোঝা যাচ্ছে 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন জিততে তারা কতটা মরিয়া। অন্যদিকে, বিরোধীদলের দাবি, প্রশান্ত কিশোর ই হোক বা অন্য যে কেউ হোক, পশ্চিমবঙ্গের মাটি থেকে বিজেপিকে হারিয়ে তৃণমূলের আর উঠে দাঁড়ানো সম্ভব নয়। আপাতত প্রশান্ত কিশোর এর ওপর নির্ভর করে রয়েছে শাসক শিবির। সম্পূর্ণ ঘটনার ওপর নজর রাখছে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!