এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > উপনির্বাচনের ফাইনাল ওপিনিয়ন – খড়্গপুর-সদর: কি হতে পারে সাম্ভাব্য ফলাফল?

উপনির্বাচনের ফাইনাল ওপিনিয়ন – খড়্গপুর-সদর: কি হতে পারে সাম্ভাব্য ফলাফল?

প্রিয় বন্ধুর মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – বাংলায় আবার বেজে গেছে নির্বাচনের দামামা – আগামী ২৫ শে নভেম্বর বাংলার ৩ বিধানসভা আসনে উপনির্বাচন হতে চলেছে। উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জের কংগ্রেস বিধায়ক প্রমথনাথ রায়ের মৃত্যুতে এই আসন খালি হয়েছে। নদীয়ার করিমপুরের তৃণমূল বিধায়ক মহুয়া মৈত্র লোকসভা নির্বাচনে জিতে সাংসদ হওয়ায় এই আসন খালি হয়েছে। পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপি বিধায়ক দিলীপ ঘোষ লোকসভা নির্বাচনে জিতে সাংসদ হওয়ায় এই আসন খালি হয়েছে।

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল দাবি করেছিল ৪২-এ-৪২, অন্যদিকে বিজেপির দাবি ছিল – উনিশে হাফ, একুশে সাফ! এই অবস্থায় বিজেপি তৃণমূলকে ধাক্কা দিয়ে ১৮ টি আসন জিতে নিয়েছে। ফলে জমজমাট বাংলার রাজনীতি। এর পাশাপাশিই, লোকসভার ‘ভুল’ থেকে শিক্ষা নিয়ে ২০১৬-এর পর আবার জোট বেঁধেছে বামফ্রন্ট-কংগ্রেস। এই পরিস্থিতিতে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই ৩ আসনের উপনির্বাচন কার্যত সমস্ত রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের কাছে অ্যাসিড টেস্ট। এই উপনির্বাচনের ফল, অনেকটাই দিশা দেবে – কি হতে চলেছে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে।

আর এই পরিস্থিতিতে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার সমীক্ষক টীম আবার বেরিয়ে পড়েছে কি হতে চলেছে এই তিন আসনের ফলাফল, তা তুলে আনার চেষ্টাতে। আগামীকাল এই তিন কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ, তার আগে শেষ হয়েছে সব দলেরই জমাটি প্রচার পর্ব। আর সব রাজনৈতিক দলের প্রচারের শেষে কি দাঁড়িয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়্গপুর-সদর বিধানসভার চিত্র? দেখে নিন একনজরে –

বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ – প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার করা এই সমীক্ষা কোনোমতেই নির্বাচনকে প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে প্রচারিত নয়। এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত সচেতন বাংলার মানুষ কি ভাবছেন, তার একটা আভাস তুলে আনার প্রচেষ্টা মাত্র। সংশ্লিষ্ট সমীক্ষায় যে যে বিষয়গুলি রয়েছে –

১. সমীক্ষার কাল – ১৬ ই নভেম্বর থেকে ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৯
২. প্রতিটি বিধানসভাতেই আলাদা আলাদা করে এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে
৩. প্রতিটি বিধানসভার অন্তত ১০% বুথে এই সমীক্ষা করা হয়েছে
৪. যে বুথে এই সমীক্ষা করা হয়েছে তার অন্তত ২৫-৪০ জন ভোটারের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে
৫. মোট ২,৫০০ মানুষের উপর এই সমীক্ষা করা হয়েছে
৬. বিভিন্ন দলবদল ও দলবদলের প্রবণতা এই সমীক্ষায় অন্যতম ‘কি-ফ্যাক্টর’ হিসাবে ধরা হয়েছে
৭. লোকসভা নির্বাচনের পর রাজনৈতিক দলগুলির কর্মসূচি কতটা প্রভাব বিস্তার করেছে তা ধরে নিয়ে এই সমীক্ষা করা হয়েছে

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই কেন্দ্রের প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা –
তৃণমূল – প্রদীপ সরকার
বিজেপি – প্রেমচন্দ্র ঝাঁ
কংগ্রেস – চিত্তরঞ্জন মন্ডল (বামফ্রন্ট সমর্থিত)
নির্দল – প্রদীপ পট্টনায়েক (বিক্ষুব্ধ বিজেপি)

রাজনৈতিক মানচিত্র –
খড়্গপুর পুরসভা ও খড়্গপুর ১ নম্বর ব্লকের খড়্গপুর রেলওয়ে সেটেলমেন্ট নিয়ে গঠিত এই বিধানসভা।
বুথ সংখ্যা – ২৭০
পুরুষ ভোটার – ১,১০,৮৬২
মহিলা ভোটার – ১,১৩,৬৮৩
তৃতীয় লিঙ্গ – ৯
মোট ভোটার – ২,২৪,৫৫৪

ওপিনিয়ন পোল অনুযায়ী কি-ফ্যাক্টর –
১. বাম-কংগ্রেস জোট
২. কংগ্রেস প্রার্থীর অত্যন্ত স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, জ্ঞান সিংহ সোহনপালের প্রভাব
৩. বিজেপি প্রার্থী নিয়ে ক্ষোভ, তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ
৪. পুর-এলাকায় তৃণমূল প্রার্থীর প্রভাব, তৃণমূল প্রার্থীকে নিয়ে বিরোধী গোষ্ঠীর মতভেদ
৫. বিক্ষুব্ধ বিজেপি প্রদীপ পাট্টানায়েকের নির্দল হিসাবে দাঁড়িয়ে যাওয়া, গেরুয়া শিবিরের একটি বড় অংশের তাঁকে সমর্থন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার করা সর্বশেষ সমীক্ষা অনুযায়ী কি হতে পারে এই কেন্দ্রের চিত্র –
তৃণমূল – ৩৪%
বিজেপি – ৩৭%
বামফ্রন্ট + কংগ্রেস – ১৫%
অন্যান্য – ১৩%
নোটা – ১%
বিজেপি প্রার্থী নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীকে ১,০০০ – ৫,০০০ ভোটে পরাজিত করতে পারে

আরও পড়ুন:- উপনির্বাচনের ফাইনাল ওপিনিয়ন – করিমপুর: কি হতে পারে সাম্ভাব্য ফলাফল?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!