এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে রাহুল ঘনিষ্ঠ নেতারা মোদির পাশে, বাড়ছে জল্পনা

কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে রাহুল ঘনিষ্ঠ নেতারা মোদির পাশে, বাড়ছে জল্পনা

মোদি সরকারের কাশ্মীর নিয়ে সাহসী সিদ্ধান্তের বিরোধিতা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে করা হলেও এখন রাহুল গান্ধীর ঘনিষ্ঠ নেতা, নেত্রীরা এই ইস্যুতেই বিজেপির পাশে দাঁড়াতে শুরু করেছেন। বস্তুত, সোমবার রাজ্যসভার পর মঙ্গলবার লোকসভায় 370 ধারা বিলোপ এবং জম্মু-কাশ্মীরকে দ্বিখণ্ডিত করার জন্য মোদি সরকারের পক্ষ থেকে বিল পাস করা হয়েছে।

ফলে এখন থেকে জম্মু- কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ হয়ে গিয়েছে। আর সরকারের এহেন সিদ্ধান্তের পরই তার প্রবল বিরোধিতা করতে দেখা গেছে কংগ্রেসকে। 370 ধারা বিলোপের যেমন বিরোধিতা করেছেন কংগ্রেস নেতারা, ঠিক তেমনই জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মধ্যে না থেকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মর্যাদা দেওয়ায় বিপক্ষ মত পোষণ করেছেন তারা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন অধিবেশন শুরুর আগে এই ব্যাপারে সোনিয়া গান্ধী এবং রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন কংগ্রেস সাংসদরা। যেখানে সোনিয়া গান্ধী স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেন যে, লোকসভায় তারা এর প্রবল বিরোধীতা করবেন। কিন্তু দলের শীর্ষ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে বিরোধিতা করার জন্য নির্দেশনামা জারি করা হলেও তা যেন খুব একটা ভালো ভাবে গ্রহণ করলেন না কংগ্রেসের নেতা নেত্রীরা।

সূত্রের খবর, ভুবনেশ্বর কলিতা, জনার্দন দ্বিবেদীর পর এবার কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াও বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের এই 370 ধারা বিলোপের অবস্থানকে সমর্থন করেছেন। যেখানে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এই গোটা ঘটনাটিকে সমর্থন করে বলেন, “আরো ভালো হত যদি পুরোপুরি সাংবিধানিক পদ্ধতি অনুসরণ করা হত। তাহলে এই বিষয়টি নিয়ে কোনো প্রশ্ন তোলার জায়গা থাকত না।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, কংগ্রেস তার দলকে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিরোধিতা করার নির্দেশ দিলেও যেভাবে রাহুল গান্ধী ঘনিষ্ঠ নেতা-নেত্রীরা একের পর এক মোদি সরকারের এহেন সিদ্ধান্তের প্রশংসা এবং সমর্থন করছেন, তাতে যে কংগ্রেসের ভেতরকার অনৈক্য ফের আরও একবার প্রকাশ্যে এল, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে ভুবনেশ্বর কলিতা, জনার্দন দ্বিবেদীর পর এবার জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার মন্তব্যে প্রবল অস্বস্তিতে হাত শিবির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!