এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চরম পদক্ষেপ নিতে বড়সড় প্রস্তুতি স্বারষ্ট্রমন্ত্রকের

কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চরম পদক্ষেপ নিতে বড়সড় প্রস্তুতি স্বারষ্ট্রমন্ত্রকের

পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দিতে এবার আদা জল খেয়ে ময়দানে নেমে পড়ল ভারত। দুদিন আগে থেকেই পাকিস্তানকে চাপে ফেলার সমীকরণ কষে ফেলেছে ভারত সরকার। এবার সেই সমীকরণ অনুযায়ীই এগোচ্ছে তাঁরা। আন্তর্জাতিক স্তরে কীভাবে পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দেওয়া যায় সেটা এবার খোলাখুলি ভাবেই দেখিয়ে দেবে ভারত সরকার।

তাই বিদেশমন্ত্রক থেকে সবুজ সংকেত পেতেই এই উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের আয়োজন করেন রাজনাথ সিং। রুদ্ধদ্বার এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা র-এর প্রধান অনিল দাসমানা, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব গউবা, আইবি-র ডেপুটি ডিরেক্টর রাজীব জৈন।

বৈঠকে কী আলোচনা হয়েছে সে বিষয়ে এখনই কিছু খোলাসা করতে চাইনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তবে সূত্রের দাবী,বৈঠকে একটি শক্তিশালী ডসিয়ার বানানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই ডসিয়ারে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার পুঙ্খনাপুঙ্খ তথ্য থেকে শুরু করে এই হামলায় কোথায় কীভাবে পাক-যোগা পাওয়া যাচ্ছে তার বিস্তারিত তথ্য প্রমাণ-সহ তুলে ধরতে হবে।

পাশাপাশি, হামলাকারী সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ কীভাবে প্রশাসনের চোখে ধুলো দিয়ে সন্ত্রাসের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ মদত দিয়ে যাচ্ছে,আর এর জন্যে পর্যাপ্ত অর্থ সাপ্লাই করছে কারা এই সংক্রান্ত যাবতীয় প্রমাণ এই ডসিয়ারে দিতে কড়া নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

ডসিয়ারটি ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স বা এফএটিএফ-এর হাতে তুলে দেবে ভারত। উল্লেখ্য,এফএটিএফ হল বিশ্বের বেশ কিছু দেশের মধ্যে সম্পর্কযুক্ত একটি সংস্থা। বিশ্বজুড়ে চলা সন্ত্রাসবাদীদের কাছে বিভিন্ন সূত্রে থেকে যাওয়া অর্থকে আটকে দেওয়াই হল এর কাজ।

প্রসঙ্গত,আগামী সপ্তাহেই প্যারিসে এফএটিএফ-এর সদর দপ্তরে বৈঠক রয়েছে। সেই বৈঠকেই যাতে ডসিয়ারটি তুলে দেওয়া যায় তার জন্যেই তড়িঘড়ি শুরু করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। । এই ডসিয়ারে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় আত্মঘাতী জঙ্গি আদিল দারের হ্যান্ডেলারের নামও উল্লখে করতে বলা হয়েছে। এই ডসিয়ারের মাধ্যমে পাকিস্তান যে সন্ত্রাসবাদী দেশ সেটার প্রমাণ আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে দেখানোটাকেই লক্ষ্যমাত্রায় রেখেছে ভারত।

জইশ সুপ্রিমো মৌলানা মাসুদ আজাহার কীভাবে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন চালানোর জন্যে অর্থের যোগান পাচ্ছেন সেটাও তুলে ধরা হয়েছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোর মধ্যে সবথেকে বড় জঙ্গী হামলা হয়ে গেল কাশ্মীরের পুলওয়ামায়। জওয়ানদের মৃত্যুতে ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। অভিযোগের আঙুল উঠেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। এই প্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক স্তরে পাকিস্তানকে কোনঠাসা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি।

আর সেজন্যেই দিন দুয়েক আগেই পরিকল্পনামাফিক ২৫ দেশের প্রতিনিধি-কে ডেকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একাধিক তথা-প্রমাণ পেশ করেন বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে। আর বৈঠক শেষে বেশিরভাগ দেশই এ ব্যাপারে সন্ত্রাসবাদ দমনে ভারতকে সমর্থন করে পাকিস্তান বিরোধী মনোভাব ব্যক্ত করেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!