এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নগদ থেকে নাকের নথ – টাকার হোলি খেলা চলল কর্ণাটকের নির্বাচনের দিন

নগদ থেকে নাকের নথ – টাকার হোলি খেলা চলল কর্ণাটকের নির্বাচনের দিন

ভোট কেনা বেচার অভিযোগে হাওয়া গরম এখন কর্নাটকের রাজনৈতিক মহলে এবং তা বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই। বিপুল উদ্দীপনার দেখা মিলছিল ভোটারদের ভিতর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে। তার ভিতরই নজর কাড়ল এ অদ্ভূত খবর। জানা গেছে, এদিন সকালেই কোলার গ্রামের এক কেন্দ্রে মহিলা ভোটারদের বাগে আনতে বিলি করা হল নাকে পড়ার নথ। এই অভিযোগ কালে পৌছাতেই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশবাহিনী এবং হেফাজতে নেয় অভিযুক্ত ৪ জনকে। অন্যদিকে, ওদিনই অর্থ বিতরণের অভিযোগ পাওয়া যায় মালুর বিধানসভা কেন্দ্রের মস্তিতে এক ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের ভিতর। জানা গেছে, ভোটকেন্দ্র থেকে বেরিয়ে আসতেই ভোটারদের নগধ টাকা দিচ্ছিল এক অজ্ঞাত ব্যক্তি। পুলিশ তাকে সঙ্গে সঙ্গেই গ্রেফতার করে। কিন্তু জেরা করেওতাঁর থেকে পর্যাপ্ত তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি । তবে গেরুয়া জামা ও গেরুয়া-সবুজ উত্তরীয় গায়ে ছিল ওই ব্যক্তির। কিন্তু ভোটপর্বে আপাতত এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছেন নির্বাচনী বরিষ্ঠ নেতারা এবং পুলিশ বিভাগ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজনৈতিক সূত্রের খবর বলছে,সম্প্রতি সোনা রূপা ও নগধ মিলিয়ে মোট ১৫২ কোটি টাকার অবৈধ সম্পত্তি উদ্ধার করা হয়েছিল। এমনটাই এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছিলো কর্নাটক নির্বাচন কমিশন। এতে নগধ ছিল ৬৭ কোটি ২৭ লক্ষ টাকা। এর পাশাপাশি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিলো প্রায় ২৩ কোটি ৩৬ লক্ষ টাকা বাজার মূল্যের বেআইনি মদ। এর মালিকের নাম প্রকাশ্যে জানায়নি নির্বাচন কমিশন। এই ঘটনার আগে তামিলনাড়ুতে দুটো উপনির্বাচন স্থগিত হয়ে গেছিলো ভোটার ঘুষ দেওয়ার খবর জানাজানি হতেই। ২০১৬ সালে নির্বাচন পবে ৩ টি ট্রাক বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিলো যাতে ছিল প্রায় ৫৭০ কোটি টাকা। পরবর্তীতে জানা গেছিল সে টাকা স্টেট ব্যাঙ্ক তাদের নিজেদের বলে দাবী করেছেন। ধোঁয়াশায় ছিল পুরো ব্যাপারটা। উওর মেলেনি অনেককিছুরই। একই ধরনের নজির দেখা গেছে উওরের রাজ্য পাঞ্জাবেও। গত বিধানসভা ভোটের সময় মদের টোকেন বিলি করা হয়েছিল ভোটারদের ভিতর। সে খবর পরে আগুনে বাতাস লাগার মতো ছড়িয়েছিল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!