এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আবার কি কর্ণাটক দখলের পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির? হেভিওয়েট মন্ত্রীর বক্তব্যে তীব্র জল্পনা শুরু

আবার কি কর্ণাটক দখলের পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির? হেভিওয়েট মন্ত্রীর বক্তব্যে তীব্র জল্পনা শুরু


আগামী লোকসভা নির্বাচনে এই কর্নাটকের কত আসনে তাড়া লড়বে তা নিয়ে যখন কংগ্রেস এবং জেডিএসের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে, ঠিক তখনই সেই কর্নাটকের বর্তমান জেডিএস-কংগ্রেস জোট সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে বিজেপির পক্ষ থেকে চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করলেন সেই কর্ণাটক সরকারেরই উপমুখ্যমন্ত্রী জি পরমেশ্বর। কিন্তু হঠাৎ কেন বিজেপির বিরুদ্ধে এই রকম অভিযোগ করলেন কর্ণাটক সরকারের উপমুখ্যমন্ত্রী?

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি কর্ণাটক সরকারের মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়েন কংগ্রেস বিধায়ক রমেশ জারকিহোলি। তবে তাঁর জায়গায় তাঁর ভাই সতীশ জারকিহোলিকে মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। কিন্তু এই রমেশ জারকিহোলি মন্ত্রিসভায় বাদ পড়ার পর থেকেই দিল্লিতে রয়েছেন এবং সেখানে তাঁর সাথে যোগাযোগ করে বিজেপি কর্নাটকের কংগ্রেস- জেডিএস সরকারকে ফেলে দেওয়ার চক্রান্ত করছে বলে মনে করেন এই কর্নাটকের উপমুখ্যমন্ত্রী।

এদিন এই প্রসঙ্গে জি পরমেশ্বর বলেন, “কংগ্রেসের কিছু বিক্ষুব্ধ বিধায়কের সঙ্গে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর বৈঠকের চেষ্টা চলছে। ঘোড়া কেনা বেচার খেলায় বিজেপি সিদ্ধহস্ত। এবারও তাঁরা আমাদের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু এতে করেই কোনো লাভই তাঁরা করতে পারবে না।”

 

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে মন্ত্রিসভা থেকে সদ্য বাদ পড়া বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস বিধায়ক রমেশ জারকিহোলির সাথে বিজেপি যোগ থাকার সম্ভাবনাকে একেবারেই উড়িয়ে দিচ্ছেন না তাঁরই ভাই তথা কর্ণাটক মন্ত্রীসভায় সদ্য যোগ দেওয়া কংগ্রেসের সতীশ জারকিহোলিও। আর এই দিন সেই সতীশের সঙ্গেই কর্নাটকের কংগ্রেস-জেডিএস সরকারের উপমুখ্যমন্ত্রী জি পরমেশ্বর বিজেপির বিরুদ্ধে তাঁদের সরকারকে ভাঙার চক্রান্ত অভিযোগ তোলায় সরগরম হয়ে উঠেছে সেখানকার রাজনীতি।

এমনকি এই ব্যাপারে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে কংগ্রেসও। তাঁদের অভিযোগ, কংগ্রেসের বিধায়কদের 25 থেকে 30 কোটি টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দিচ্ছে বিজেপি। তবে কংগ্রেস এবং জেডিএস এর এহেন অভিযোগকে উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি। এদিন এই প্রসঙ্গে কর্নাটকের বিজেপি সভাপতি বি এস ইয়েদুরাপ্পা বলেন, “কর্নাটকের সরকার ফেলার কোনো চেষ্টা আমরা করছি না। প্রয়োজনে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে যেসব দাবি করা হচ্ছে তার প্রমাণ পেশ করা হোক।”

পাল্টা কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও কংগ্রেস পরিষদীয় দলের নেতার সিদ্ধারামাইয়া সেই প্রমাণ দ্রুত পেশ করা হবে বলে জানান। সব মিলিয়ে এবার বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেস-জেডিএসের কর্নাটক সরকারকে ভেঙে দেওয়ার চক্রান্ত ওঠায় সরগরম সেখানকার রাজ্য রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!