এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কাটমানির পোস্টার কাণ্ডে নয়া মোর, সাংসদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক পুলিশ অফিসার

কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কাটমানির পোস্টার কাণ্ডে নয়া মোর, সাংসদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক পুলিশ অফিসার

সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কাটমানির পোস্টার লাগানো নিয়ে জল গড়িয়েছে অনেক দূর। গ্রেফতার হয়েছেন পুলিশ অফিসার হুগলি DIB-র OC সমীর সরকার ৷ আর এর পরেই এই কাণ্ডে নয়া মোর এনে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন সমীরবাবু।

জানা যাচ্ছে যে, শ্রীরামপুর থানার পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করার পর তিনি এই বিষয়ে অভিযোগ করে বলেন যে, “কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন ৷ ওঁর জন্য আজ কষ্ট করে ইলেকশনটা করলাম আর তার এই প্রতিদান দিলেন? আমাকে ফাঁসানো হয়েছে ৷ আমি গাড়িতে ছিলাম না ৷ “যার জেরে নতুন করে জল্পনা শুরু।

প্রসঙ্গত,এই ঘটনার সূত্রপাত 30 জুলাই গভীর রাতে। ওয়েলিংটন জুটমিল, ESI হাসপাতাল ও বাসস্ট্যান্ডের কাছে সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে পোস্টার লাগাতে দেখা যায় দুজনকে। সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে দেখা যায় যে, একটি গাড়িতে করে ওই দুই ব্যক্তি স্টিকার লাগাতে এসেছিলো।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আরো জানা যায় যে, ওই গতিটিতে পুলিশের স্টিকার লাগানো ছিল। এরপর সেই গাড়িটিকে গাড়িটিকে চুঁচুড়ার খাদিনামোড় থেকে উদ্ধার করে গাড়ির চালক অমিয়কে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এরপর অমিয়বাবুকে জেরা করে পুলিশের জানতে পারেন যে, হুগলি গ্রামীণ পুলিশের DIB OC ওয়াচ সমীর সরকার ওই গাড়িটি ব্যবহার করেছিলেন ৷ এরপর সমীরবাবুকে আর অমিয়বাবুকে একসাথে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করার জন্য সমীরবাবুকে পুলিশের ডেকে পাঠালে তিনি আসেন নি যার জেরেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। জানা যাচ্ছে তাঁর নামে একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে ৷

আর এদিন এই প্রসঙ্গেই সমীরবাবুর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন আর দাবি করেন যে তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি বলেন, “কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন ৷ ওঁর জন্য আজ কষ্ট করে ইলেকশনটা করলাম আর তার এই প্রতিদান দিলেন? আমাকে ফাঁসানো হয়েছে ৷ আমি গাড়িতে ছিলাম না ৷ ”

এদিকে এই নিয়ে এখনো পর্যন্ত কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ খোলেন নি। তবে লোকসভা ভোটের পর বিজেপির তরফ থেকেই অভিযোগ করা হয়েছিল যে সেখানে বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার জিতে যেতেন কিন্তু তৃণমূলের তরফ থেকে পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে অসাংবিধানিক উপায়ে জিতেছেন। আর সেখানেই রাজনৈতিকমহলের প্রশ্ন তবে কি সমীরবাবু সেই অভিযোগকে মান্যতা দিলেন এদিন। এখন দেখার সাংসদ কি বলছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!