এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এবার কালীঘাট মন্দিরের নির্বাচন নিয়ে বড়সড় নির্দেশ আদালতের,জানুন বিস্তারিত

এবার কালীঘাট মন্দিরের নির্বাচন নিয়ে বড়সড় নির্দেশ আদালতের,জানুন বিস্তারিত

মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে কালীঘাট মন্দির কাউন্সিল অব সেবাইতের। গত বছর ২৩ শে জুলাই পরিচালন কমিটির ভোট হয়েছিল। এবার তার মেয়াদ শেষ হয় তিন মাস কেটে গেলেও এখন নির্বাচন হয়নি। তার জেরে সমস্যা হচ্ছে আভ্যন্তরীন কাজকর্মে। বেশ কিছু সিদ্ধান্তও থমকে রয়েছে নির্বাচন প্রক্রিয়া না হওয়ার কারণে। তবে এবার ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার আশা দেখা গেল আদালতের রায়ে। আগামী ২৫ শে নভেম্বরের মধ্যে গঠনতন্ত্র মেনে কালীঘাট মন্দিরের ভোটপর্ব সম্পন্ন করার নির্দেশ দিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা ও দায়রা জজ রবীন্দ্রনাথ সামন্ত। কাজেই ভোট প্রস্তুতি পর্ব নিয়ে চূড়ান্ত তৎপরতা রয়েছে কালীঘাট মন্দির পরিচালন কমিটির মধ্যে।

দুটি পরিচালন কমিটির তত্ত্বাবধানে কালীঘাট মন্দিরের দেখরেখ করা হয়। একটি হল কালীঘাট মন্দির কমিটি এবং অন্যটি কালীঘাট মন্দির কাউন্সিল অব সেবাইত। এই দ্বিতীয় কমিটিরই মেয়াদ শেষ হয়েছে ২৩ জুলাই। তবে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে নির্দিষ্ট সময়ে কেন ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়নি তা বিচারকের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল কাউন্সিল অব সেবাইতের কাছে। জবাবে তাঁরা,আভ্যন্তরীন কিছু সমস্যাকে কারণ হিসাবে দেখায়। এর ভিত্তিতে আবেদন জানায় ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে তাঁদের কিছুটা সময় দেওয়া হোক বিচারক তাঁদের আবেদনে সম্মতি দিয়ে আদেশে জানান, আগামী ২৫ নভেম্বরের মধ্যে ভোট কর্মসূচি সম্পন্ন করতে ফেলতে হবে। এছাড়া ভোটপর্ব যাতে নির্বিঘ্নে হয় এবং গণনার সময় যাতে কোনো কারচুপি না হয় তার জন্য পর্যাপ্ত পুলিশি বন্দোবস্তো করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কলকাতা পুলিসের সংশ্লিষ্ট ডিভিশনের ডেপুটি কমিশনারকে (ডিসি) কে।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো  করুন এই লিঙ্কেখবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক

আদালত সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে, কালীঘাট মন্দিরের এই ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য জেলা ও দায়রা জজ ইলেকশন অফিসার হিসেবে নিয়োগ করেন আলিপুরের ১৬ নং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারক শান্তনু মিশ্রকে। কাউন্টিং এবং পোলিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ করা হয় আলিপুরের আরও চারজন বিচারককে। এছাড়া তাঁদের মামলার ব্যাপারে যাবতীয় সহায়তার জন্য এই আদালতেরই আরও ১০ জন বেঞ্চ ক্লার্ককে নিয়োগ করা হয়। পদাধিকার বলে কালীঘাট মন্দির কমিটির চেয়ারম্যান হলেন জেলা ও দায়রা জজ। বর্তমানে মন্দির কমিটির সভাপতি পদে রয়েছেন রাজ্যসভার সংসদ সদস্য তথা সরকারি আইনজীবী শুভাশিস চক্রবর্তী। উল্লেখ্য,কাউন্সিল অব সেবাইতের পক্ষ থেকে ফের আদালতকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে,তাঁরা ভোটের জন্য জোরকদমে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ভোটপ্রক্রিয়ায় সম্পূর্ণ তথ্য পেশ করেও এদিন আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। সেই রিপোর্ট দেখে অত্যন্ত সন্তুষ্ট আদালত। আদালতের তরফ থেকে এটাও জানানো হয়েছে,ভোট না হওয়া পর্যন্ত বিদায়ী কমিটি কাউন্সিল অব সেবাইতের দায়িত্বেই থাকবে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!