এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে চিন্তা! প্রতিবাদ করে মার খাওয়ায় আবার শুরু জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি

চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে চিন্তা! প্রতিবাদ করে মার খাওয়ায় আবার শুরু জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি

কিছুদিন আগেই আরজি করে জুনিয়র চিকিৎসক পরিবহ মুখোপাধ্যায়ের উপর হামলার ঘটনায় প্রবল অশনিসংকেত দেখা দিয়েছিল রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায়। জুনিয়র চিকিৎসকদের কর্মবিরতির জেরে গোটা বাংলা জুড়ে লাটে উঠেছিল চিকিৎসা পরিষেবা। পরবর্তীতে সরকারের সঙ্গে জুনিয়র চিকিৎসকদের একটি প্রতিনিধিদলের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসে সেই কর্মবিরতি উঠে যায়।

কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই বৈঠকে চিকিৎসকদের ওপর কোনো হামলা হবে না এই কথা বললেও ফের জুনিয়ার চিকিৎসকদের ওপর হামলার ঘটনায় উত্তাল হল রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। যার জেরে এখন সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চলছে কর্মবিরতি।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে এই সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মূল গেটের সামনে একজন মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে বেশ কয়েকজন যুবক ধরে মারধর করছিল। সেই সময়ই হাসপাতাল থেকে রাতের খাবার খেতে বের হচ্ছিলেন জুনিয়র চিকিৎসক মিন্টু দে এবং সুমিত বসু। তারা মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে মারতে দেখে যারা সেই যুবককে মারছিলেন তাদের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদে গর্জে ওঠেন।

আর এরপরই সেই দুই চিকিৎসককে ব্যাপক মারধরের অভিযোগ উঠেছে সেই যুবকদলের বিরুদ্ধে। জানা গেছে ইতিমধ্যে এই ঘটনায় মিন্টু দে নামে আক্রান্ত জুনিয়র চিকিৎসককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পাশাপাশি আরেক আক্রান্ত জুনিয়র চিকিৎসক সুমিত দেরও চিকিৎসা চলছে। আর জুনিয়র চিকিৎসকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এবার দোষীদের গ্রেপ্তার এবং তাদের সঠিক নিরাপত্তার দাবিতে শনিবার থেকে কর্মবিরতিতে নামতে দেখা গেল সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজের জুনিয়র চিকিৎসকদের।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে জুনিয়র ডাক্তারদের পক্ষ থেকে তিনজনের বিরুদ্ধে বেলঘড়িয়া থানায় লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে। তবে পুলিশ এখনও পর্যন্ত একজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। আর এইভাবে জুনিয়র চিকিৎসকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটায় এবং তার জন্য জুনিয়র চিকিৎসকদের সকলে কর্মবিরতিতে নামায় সাগরদত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরিষেবা যে শিকেয় উঠতে পারে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত একাংশ। যদিও বা তারা আন্দোলনে নামলেও পরিষেবা ব্যাহত হচ্ছে না বলে দাবি জুনিয়র চিকিৎসকদের।

এদিন এই প্রসঙ্গে জুনিয়র ডাক্তারদের পক্ষে সুচেতনা ধারা বলেন, “যে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে মারধর করা হচ্ছিল, তার পায়ে কয়েকদিন আগে ব্যান্ডেড করেছেন একজন জুনিয়র চিকিৎসক। মানবিকতার খাতিরে তিনি প্রতিবাদ করেছিলেন। এরপর এই দুজন তার ওপর চড়াও হয়। এই হাসপাতালে নিরাপত্তা নেই। কলেজের অধ্যক্ষকে আমরা একটি চিঠি দিয়েছি। পুলিশ ফাঁড়ি বসানোর দাবি জানিয়েছি। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। সোমবার থেকে পরিষেবা বন্ধ রেখে আন্দোলন হবে কিনা, সেই ব্যাপারে আলোচনা চলছে।”

কিন্তু কেন এই হাসপাতালে নিরাপত্তার অভাব বোধ করছেন জুনিয়ার চিকিৎসকরা! এদিকে এই ব্যাপারে সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুপার ডাক্তার পলাশ দাসকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি গোটা বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন বলে জানান। অন্যদিকে জুনিয়ার ডাক্তাররা পরিষেবা বন্ধ রেখে যদি আন্দোলনে নামেন, তাহলে রোগীদের সমস্যা হবে। তাই পরিষেবা বন্ধ করে তারা যাতে আন্দোলন না করেন, সেই ব্যাপারে আবেদন জানিয়েছেন কামারহাটি পৌরসভার স্বাস্থ্য বিষয়ক পুর পারিষদ বিমল সাহা। সব মিলিয়ে জুনিয়ার চিকিৎসকদের ওপর হামলার ঘটনায় প্রতিবাদের জেরে চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে প্রবল চিন্তা সাগরদত্ত মেডিকেল কলেজে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!