এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জয় শ্রী রাম নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পতিক্রিয়ায় পাল্টা পতিক্রিয়া দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা

জয় শ্রী রাম নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পতিক্রিয়ায় পাল্টা পতিক্রিয়া দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা

বর্তমানে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়া নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। আর এবার এই ইস্যুতেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ। বস্তুত, কিছুদিন আগেই চন্দ্রকোনা রোড দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয় আসার সময় কিছু যুবক জয় শ্রীরাম স্লোগান দিলে তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাস্তায় নেমে এসে “কিরে পালাচ্ছিস কেন! সামনে আয়। হরিদাস সব, আমাকে গালাগালি দিচ্ছে! বলে সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই সম্প্রতি নৈহাটি ও ভাটপাড়া দিয়ে সেই মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় গেলে সেখানেও কিছু যুবক জয় শ্রীরাম স্লোগান দিলে রাস্তায় নেমে পড়ে রীতিমত রনংদেহী মেজাজে অবতীর্ণ হন তিনি। এমনকি হুমকির সুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমাদের খাচ্ছে, আমাদের পড়ছে, আবার গালাগালি দিচ্ছে। সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” আর মুখ্যমন্ত্রীর এহেন ভূমিকায় হতবাক হয়ে যান সকলেই।

কেন জয় শ্রীরাম স্লোগান দিলেই ক্ষিপ্ত হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়! তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করে বিভিন্ন মহল। এহেন একটা পরিস্থিতিতে এবার সেই তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ। এদিন তিনি বলেন, “জয় শ্রী রাম শব্দের মধ্যে কোনো অশ্লীলতা নেই। হিন্দু ধর্মে আমরা যারা বিশ্বাস করি, তারা জয় শ্রীরাম বলি।কিছু দুঃখের সঙ্গে বলতে বাধ্য হচ্ছি যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। কেউ ওনার সামনে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিলেই উনি গাড়ি থেকে নেমে পুলিশকে নির্দেশ দিচ্ছেন গ্রেপ্তার করার। আমরা ঠিক করেছি নবান্নে 10 লক্ষ জয় শ্রীরাম কার্ড পাঠিয়ে ওনাকে শুভেচ্ছা বার্তা দেব।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর মানসিক অবস্থা মোটেই ঠিক নেই বলেও এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খোঁচা দেন অর্জুন সিংহ। তিনি বলেন, “ওনার সুচিকিৎসার প্রয়োজন। উনি যত তাড়াতাড়ি মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দেবেন, ততই ভালো। ওনাকে চেয়ার থেকে সরাতে যত আন্দোলন করতে হয় আমরা করব। কয়েক মাসের মধ্যেই ওনাকে চেয়ার থেকে সরিয়ে ছাড়ব।”

আর এই নিয়ে সরব হলেন বিজেপির নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীও । তিনি কটাক্ষ করে বলেন মুখ্যমন্ত্রী এমন আচরণ করছেন যেন কেউ তার কানে গরম তেল ঢেলে দিয়েছেন । তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য কামনা করেন এবং বলেন হয়তো তিনি সাময়িক ভাবে মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন ,হয়তো তার চিকিত্‍সা হওয়া দরকার।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ভবিষ্যৎ কি হবে তা ভবিষ্যতই বলবে। তবে যেভাবে জয় শ্রীরাম শব্দ শুনে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রনংদেহী মেজাজে অবতীর্ণ হচ্ছেন, তা যে বঙ্গ রাজনীতিতে এখন বিরোধী দল বিজেপির কাছে শাসকের বিরুদ্ধে লড়াই করার একটি বড় ইস্যু হয়ে উঠেছে সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top