এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > এবার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে বড়সড় দাবি জানালেন মুকুল রায়

এবার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে বড়সড় দাবি জানালেন মুকুল রায়

কয়েকদিন আগেই একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে যে মুখ্যমন্ত্রী গাড়ি করে যাচ্ছেন আর সেখানে লোকেরা ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি তুলেছে। আর এই শুনেই মুখ্যমন্ত্রী গাড়ি থামিয়ে, গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন আর যারা ‘জয় শ্রী রাম ‘ বলছিল তাদের দিকে তেড়ে যাচ্ছেন। আর বলছেন -“কিরে পালাচ্ছিস কেন? আয় এদিকে আয়। হরিদাস সব-মমতাকে গালাগালি দিচ্ছে।” আর এর পরেই জানা যায় ‘জয় শ্রী রাম ‘ ধ্বনি তোলার জন্য কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর এরপর এই নিয়ে বেশ হৈচৈ শুরু হয় রাজ্যে। তারপর ওই বিজেপি কর্মীদের ছেড়ে দেওয়া হয়। বিজেপির দাবি রাজ্য জুড়ে শোরগোল পরে যাওয়ায় বিজেপি কর্মীদের ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় মুখ্যমন্ত্রী।

আর এদিন এই নিয়ে মুখ খুললেন একদা তৃণমূল নেত্রীর বিস্বস্ত সৈনিক মুকুল রায়। আর তিনি এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নজরবন্দি করার আবেদন জানালেন। প্রসঙ্গত, বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে বিজেপি তরফ থেকে অভিযোগের পর নজরবন্দি করা হয়েছিল আর এবার মুকুল রায় নির্বাচন কমিশনকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নজরবন্দি করার আবেদন করলেন।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

শুধু তাই নয় ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে এই পদক্ষেপ জরুরি বলেও দাবি করেন তিনি। আর এর কারণ হিসাবে তিনি এদিনের ভাইরাল হওয়া ভিডিওটির কথা বলেন, ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান শুনে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী কনভয়ে থামিয়ে গাড়ি থেকে নেমে পড়েছিলেন। সেই ভিডিও ফুটেজ জেলা প্রশাসন থেকে পাঠানো হয়েছে নির্বাচন কমিশনে। সাথেই এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে চারজনকে সেই বিষয়েও নির্বাচন কমিশনকে জানান হয়েছে। এদিন তিনি অত্যান্ত ক্ষুব্ধ হয়ে বলেন যে, ‘কেউ জয় শ্রীরাম স্লোগান দিতেই পারে! কারও পছন্দ হতে পারে, কারও নাও হতে পারে। তার জন্য কেন তাকে হেনস্থা হতে হবে।গণতন্ত্র কোথায় রাজ্যে ?

 

প্রসঙ্গত, এই নিয়ে অবশ্য আগেই তৃণমূল জানিয়েছে যে বিজেপি চক্রান্ত করে এই ভিডিও প্রকাশ করেছে। ‘জয় শ্রী রাম ‘ ধ্বনি তোলার আগে মুখ্যমন্ত্রীকে গালাগালি দেওয়া হচ্ছিলো যার জেরেই তিনি গাড়ি থেকে নামেন। আর বিজেপি সুকৌশলে সেই গালাগালি দেওয়ার অংশটা বাদ দিয়ে বাকি ভিডিওটি প্রকাশ করেছে নেত্রীকে অপদস্ত ,কুৎসা রটানোর জন্য।

এদিন বিষ্ণুপুরের বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁয়ের হয়ে সোনামুখী প্রচারে আসেন মুকুল রায়। সেখান থেকেই তিনি দাবি করেন যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোট প্রচারে মুখ্যমন্ত্রী পদকে ব্যবহার করছেন। ফলে রাজ্যে সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি হচ্ছে। তাই ভোটের দিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নজরবন্দি করার দরকার। সাথেই অভিযোগ করে বলেন যে, আমাদের প্রার্থী সৌমিত্র খাঁকে নিজের এলাকার ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এদিকে বনগাঁও লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের দুর্ঘটনার পিছনেও যড়যন্ত্র আছে বলে শাসকদলের দিকে আঙ্গুল তোলেন ,এবং এই ঘটনার নিরপেক্ষ ও পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করেন তিনি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!