এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > আবারো সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের অভিযোগ বাংলার বুকে

আবারো সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের অভিযোগ বাংলার বুকে

সংবাদমাধ্যমকে বলা হয় গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ, কিন্তু ইদানিং বারবার সেই সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের অভিযোগ ভেসে আসছে বাংলার বুকে। গতকাল তা সামনে এল আবারো, স্থান উত্তরবঙ্গের দিনহাটা আর এবারের ঘটনায় অভিযুক্ত খোদ পুলিশ প্রশাসন। অভিযোগ গতকাল কোচবিহারের দিনহাটা থানায় গ্রেফতারির হুমকি দিয়ে চিত্র সাংবাদিকের ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে ছবি ডিলিট করাতে বাধ্য করালেন সেখানকার আইসি।
সূত্রের খবর, গতকাল দুপুরে দিনহাটা চওরাহাট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে দিনহাটা থানা এলাকায় চুরি বন্ধের দাবিতে একটি স্মারকলিপি জমা দেওয়ার কর্মসূচিকে ক্যামেরা বন্দি করতে যাওয়ায় স্থানীয় খবর চ্যানেলের চিত্রসাংবাদিক প্রশান্ত সাহাকে ছবি তুলতে বাধা দেন দিনহাটা থানার আইসি জহরজ্যোতি রায়। প্রশান্তবাবুকে ক্যামেরা থেকে তোলা ভিডিও ডিলিট করার নির্দেশ দেন আইসি জহরজ্যোতি বাবু বলে অভিযোগ। এমনকি প্রশান্ত বাবু এই ঘটনার প্রতিবাদ জানালে তাঁকে গ্রেফতারির হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। প্রশান্তবাবুর তরফে আরো অভিযোগ, শুধু ছবি ডিলিট করেই ক্ষান্ত হননি অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার এরপর তাঁকে থানা থেকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে বারও করে দেওয়া হয়।
পুলিশের এই অমানবিক ব্যবহারে চূড়ান্ত অপমানিত হন চিত্রসাংবাদিক প্রশান্ত সাহা। আর তাই ঘটনায় জড়িত আইসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়ে দিনহাটার প্রেস ক্লাবের সদস্যরা জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ চেয়ে দিনহাটার এসডিপিও এর কাছে স্মারকলিপি জমা দেন, পরে তাঁরা দিনহাটা থানার সামনে ধর্নায় বসেন বলেও সূত্রের খবর। এরপর এসডিপিও কুন্তল বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশ্বাসে অবরোধ তুলে দেন দিনহাটা প্রেস ক্লাবের সদস্যরা বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে দিনহাটা প্রেস ক্লাব ও কোচবিহার প্রেস ক্লাব। কোচবিহার প্রেস ক্লাবের সম্পাদক সুমন কল্যাণ ভদ্র জানিয়েছেন যে বিষয়টিকে রাজ্য পুলিশের ডিজির নজরাধীনে আনা হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!