এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট নিয়ে যে সিদ্ধান্ত সিপিআইএমের

লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট নিয়ে যে সিদ্ধান্ত সিপিআইএমের

2011 সালে রাজ্যের মসনদ থেকে বিদায় নেওয়ার পরই কার্যত ভেঙে পড়েছে এরাজ্যে বামেদের সংগঠন। একের পর এক নির্বাচনে লাল দুর্গ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে মানুষ। কিন্তু আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে এই বাংলায় কিছুটা হলেও মাথা তুলে দাঁড়ানোর জন্য এবার কংগ্রেসের সাথেই আসন সমঝোতা করার পক্ষে সায় দিচ্ছে সিপিএম।

তবে সিপিএমের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলা হলেও কংগ্রেসের সাথে জোট করার ব্যাপারে ঠিকমত এখনও পর্যন্ত সায় দেয়নি বাম শরিক ফরওয়ার্ড ব্লক এবং আরএসপির মতো দলগুলো। কিন্তু একের পর এক শরিক যদি বড় শরিক সিপিএমের এহেন সিদ্ধান্তের পাশে না দাঁড়ায় তাহলে তো বামেদের ঐক্যতেই আঘাত পড়বে।

আর ফরওয়ার্ড ব্লক বা আরএসপির পর সম্প্রতি বিশাখাপত্তনমে অনুষ্ঠিত সিপিআইয়ের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠকে এই কংগ্রেসের সাথে জোটের ব্যাপারে কোনরূপ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কিনা সেদিকেই তাকিয়ে ছিল বামেদের বড় শরিক সিপিএম। সূত্রের খবর, জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠকে সেই সিপিএমের পথে হেটে বিমান বসু এবং সূর্যকান্ত মিশ্রদের কিছুটা হলেও স্বস্তি দিল সিপিআই।

জানা গেছে, দলের বৈঠকে সিপিআই সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল এবং বিজেপির ভোট ভাগাভাগি রুখতে কংগ্রেসের সাথে জোট করা উচিত। তবে জোট হলেও বামফ্রন্টের ব্যানারেই কংগ্রেসের সাথে এই ব্যাপারে আলোচনা হওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরেই এই রাজ্যে সিপিএম লড়লেও তেমন ভাবে একক ক্ষমতা নিয়ে কোনো নির্বাচনে লড়াই করতে দেখা যায়নি সিপিআইকে। তাই দলের সংগঠনকে চাঙ্গা করতে এবার আগামী 26 তারিখ কলকাতা ধর্মতলায় একটি কেন্দ্রীয় জনসভা বেশ করতে চলেছেন সিপিআই। যেখানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে সাধারণ সম্পাদক সুধাকর রেড্ডি, মোদি বিরোধী দুই তরুণ তুর্কি কানহাইয়া কুমার ও জিগ্নেশ মেবানির মতো নেতাদের।

কিন্তু যেখানে সিপিএম বাদে অন্যান্য বাম শরিক ফরওয়ার্ড ব্লক এবং আরএসপির মত দলগুলো কংগ্রেসের সাথে জোটের ব্যাপারে কিছুটা অনীহা প্রকাশ করেছে, সেখানে কেন এই কংগ্রেসের সাথে জোটের করার ব্যাপারে সায় দিলেন তাঁরা? এদিন

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

 

এঈ প্রসঙ্গে সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “সারাদেশে বিজেপির বিরুদ্ধে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। বিজেপি বিরোধী ভোটের বিভাজন রক্ষাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য। বাংলায় ক্ষমতাসীন দল তৃণমূলকে আমরা বিজেপির দোসর বলেই মনে করি। তাই এখানে বিজেপি ও তৃণমূলের বিরোধী ভোট বিভাজন ঠেকানোর জন্য কংগ্রেসের সঙ্গে বামেদের আসন সমঝোতার অবস্থানে আমাদের আপত্তি নেই। আমরা চাই স্বচ্ছতার সঙ্গে বামফ্রন্টে আলোচনা করে এই নিয়ে সিদ্ধান্ত হোক।” তবে এই ব্যাপারে এখন বামেদের অন্যান্য শরিক ও কংগ্রেস ঠিক কী সিদ্ধান্ত নেয় সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

Top
error: Content is protected !!