এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে আরও এক হেভিওয়েট বাম বিধায়ক কি তৃণমূলে? জল্পনা চরমে

শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে আরও এক হেভিওয়েট বাম বিধায়ক কি তৃণমূলে? জল্পনা চরমে

ফের একজন সিপিএমের বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন।নবগ্রামের সিপিএমের বিধায়ক কানাই মন্ডল আজ তৃণমূলে নিজের নাম লেখাবেন, এমনটাই জল্পনা শুরু হয়েছে। ১৯ জানুয়ারির বিগ্রেড প্রস্তুতি উপলক্ষ্যে নবগ্রামের রসুলপুরে জনসভা করার কথা তৃণমূলের জেলা পর্যবেক্ষক তথা পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর। সেই সভা থেকেই জোড়াফুল চিহ্নিত পতাকা তুলে নেবেন কানাই বাবু এমমটাই জোর চর্চা শুরু হয়েছে এলাকায়।

তৃণমূলের জেলা ও ব্লক নেতাদের একাংশের দাবী,দলবদলের ব্যাপারে ওই সিপিএম বিধায়কের সঙ্গে কথা চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে শরিক হতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। এই জল্পনা প্রকাশ্যে আসতেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে সিপিএমের অন্দরমহলেও। তবে তাঁদের বক্তব্য,গোটা ঘটনাটাই মিথ্যে রটিয়েছে তৃণমূল। সিপিএম বিধায়ক দলবদল করছেন না।

দলীয় সূত্রের খবর,বামআমলে সিপিএমের শক্ত ঘাঁটি হিসাবেই পরিচিতি ছিল নবগ্রামের। কিন্তু ধীরে ধীরে ক্ষমতার রাশ তৃণমূলের হাতে চলে যাওয়ায় নবগ্রামের বামেদের প্রতাপ কমেছে। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনেই এখানের গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি ও জেলা পরিষদের সমস্ত আসন দখল করেছে তৃণমূল। বর্তমানে এই এলাকাটি কার্যত বিরোধীশূন্য।

২০১১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের ক্ষমতায় তৃণমূল এলেও নবগ্রাম থেকে কিন্তু বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন সিপিএমের কানাই মন্ডল। ২০১৬ এর বিধানসভার নির্বাচনেও এলাকার লাগাম নিজের হাতে ধরে রেখেছেন তিনি। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনে এলাকায় তৃণমূল ঝড়কে আটকাতে পারেননি আর তিনি। সিপিএমের জেলা কমিটির সদস্য হওয়ার পাশাপাশি তিনি জেলা খেতমজদুর ইউনিয়নের জেলা সম্পাদকও।

কানাইবাবু যে দলবদল করছেন এ খবর পৌছে গিয়েছে সিপিএমের নবগ্রাম এরিয়া কমিটি ও জেলা কমিটির অফিসে। সিপিএমের নবগ্রাম এরিয়া কমিটির সম্পাদক ময়না শেখ এ প্রসঙ্গে জানান,বিধায়ক কানাই মন্ডল তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন এটা এলাকায় সম্প্রতি প্রচার করেছে তৃণমূল। এমনকি পাড়ার বৈঠকেও এই কথা প্রচার করেছে তারা। কিন্তু খোদ বিধায়কই এটাকে গুজব বলেছে।

তবে বিধায়কের সঙ্গে যে পার্টির যোগাযোগ রয়েছে একথা অস্বীকার করলেন না তিনি। তাঁর বক্তব্য,তৃণমূল বিধায়ককে দলে টানার জন্যে তীব্র চাপ সৃষ্টি করছে। যাকে নিয়ে এতো জল্পনা সেই কানাই বাবু কিন্তু একদমই স্বীকার করলেন না তাঁর দলবদলের খবরটা। তিনি সাফ কথায় জানালেন,তিনি সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যাচ্ছেন না। তৃণমূল অপপ্রচার চালাচ্ছে। কিন্তু একথাটাই বিশ্বাস করতে চাইছে না সিপিএমের একাংশ। আসলে কিছুদিন আগেই জেলার বিভিন্ন এলাকার কংগ্রেস বিধায়কদের তৃণমূলে যোগ দেওয়া নিয়ে তীব্র গুঞ্জন শুরু হয়েছিল রাজনৈতিকমহলে। কিন্তু পরে বিধায়করা জানিয়েছিলেন যে তাঁরা দলত্যাগ করছেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কিন্তু শেষে দেখা গিয়েছিল কেউ কোলকাতার ২১ জুলাইয়ের সভায়,কেউ আবার এলাকায় শুভেন্দু অধিকারীর সভাতে প্রকাশ্যে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। এই প্রেক্ষিতে দাঁড়িয়ে কাউকে বিশ্বাস করাটা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। যাইহোক,এলাকার বামশিবিরের চোখ থাকবে শুভেন্দু অধিকারীর এদিনের সভায়। কানাই বাবু দল বদল করবেন নাকি পুরোটাই জল্পনা,সেটা প্রমাণ হয়ে যাবে তৃণমূলের জনসভাতেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!