এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শহীদ দিবসে বড়সড় ধাক্কা খেলো তৃণমূল, বিজেপিতে যোগ অসংখ্য কর্মী সমর্থকের

শহীদ দিবসে বড়সড় ধাক্কা খেলো তৃণমূল, বিজেপিতে যোগ অসংখ্য কর্মী সমর্থকের

তৃণমূলের ২১ জুলাই হোক বা ব্রিগেড এতদিন কলকাতা দেখেছে অন্য রূপ। জনজোয়ার ও পাশাপাশি যোগদানের চমক। কিন্তু এবারে তার ধরে কাছে দেখা যায়নি জনসমাগম সাথেই কাউকে, নিদেন পক্ষে কোনো অন্য দলের কর্মীদেরকেও ঘরে তুলতে পারেনি শাসকদল। যদিও জনসমাগম নিয়ে- আগের সব রেকর্ড ছাপিয়ে গেছে বলে দাবি তুললেও যোগদান প্রসঙ্গে চুপ শাসকদলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

এতকাল ২১ সে জুলাই অন্য দলের নেতা কর্মীরা ভয়ে থাকতেন। ভয়ে থাকতেন, তাদের ঘরে তৃণমূল হানা দিলো কিনা তা দেখার জন্য উদগ্রীব হয়ে টেলিভিশনের পর্দায় সারাক্ষন চোখ রাখতেন। বড়সড় ধাক্কা দিয়ে অন্য দলের হেভিওয়েট নেতা নেত্রী কর্মীদের ঘরে তুলতেন নেত্রী। এককথায় বড় বড় চমক থাকতো সেই তালিকায় – সাহিত্য, সিনেমা,খেলোয়াড় জগতের বিশিষ্ট ব্যাক্তিত্বর, অন্যদলের হেভিওয়েট নেতা ,বিধায়ক কে নেই সেখানে, কিন্তু এবারেও উদগ্রীব হয়ে বসে থাকলেও দেখা মেলেনি কারুর।

আর এবারে যখন তৃণমূলের সভা ভড়াতে রীতিমত কালঘাম ছুটছে তৃণমূলের ভলেন্টিয়ার কর্মীদের। তখন অন্য ছবি দেখা গেলো বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে। তৃণমূলকে ধাক্কা দিয়ে শাসকদলের ঘর ভাঙলো বিজেপি।তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিলেন বেশ কিছু কর্মী, সমর্থক। একই সঙ্গে সিপিএম ছেড়েও গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালেন অনেকে।

জানা যাচ্ছে যে, বাঁকুড়ার ওন্দা থানার খামারবেড়িয়া গ্রামে তৃণমুল এবং সিপিএম ছেড়ে বিজেপি-তে নাম লিখেছে একশোটি পরিবার। নতুন সদস্যদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি-র বিষ্ণুপুর জেলার সহ- সম্পাদক অমরনাথ শাখা এবং বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী সুজাতা খাঁ।

এদিকে এই নিয়ে বিজেপির দাবি সংখ্যাটা আরো বাড়বে। অনেকেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করছেন যোগ দেবার জন্য। বাছাই পক্রিয়া চলছে বলে দেরি হচ্ছে। আর সাথেই বিজেপির দাবি আজ ২১ সে জুলাই অন্যবার তৃণমূল অন্য দলের ঘর ভাঙে এবার তাদের অবস্থা করুন। তাদের ঘর ছেড়েই লোকে বিজেপিতে চলে আসছে। আজকেও নিজেদের ঘর বাঁচাতে পারলো না। মানুষ আর তৃণমূলের সঙ্গে নেই এই বার্তা নেত্রীকে দিয়ে দিয়েছেন আজকের এই যোগদান।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি, সবাই শহীদ দিবসে যোগ দিতে গেছে সেই সুযোগে ভয় দেখিয়ে ওদের হাতে দলের পতাকা ধরিয়ে দিয়েছে বিজেপি। ওরা ইচ্ছা করে যায়নি। জোর করে ভয় দেখিয়ে যোগদান করিয়ে কোনো লাভ নেই কাউকেই রাখতে পারছে না বিজেপি। সভাই আবার নেত্রীর কাছেই ফিরে আসছে। ফলে এরাও ফিরে আসবে। আর সবাই তৃনমূল , গোটা রাজ্যই সবুজ, বিজেপির কয়েকজন শুধু লাফাচ্ছে ,বাকি সভায় তৃণমূল – তাহলে কাকে আবার নতুন করে যোগ দেওয়াবে।

বিজেপির দাবি মানুষ বোকা নয়, সব দেখতে পাচ্ছে। এদিকে রাজনৈতিকমহলের দাবি ২১ সে জুলাই এইভাবে তৃণমূলের ঘর ভেঙে বিজেপি বড়সড় বার্তা দিলো শাসকদলকে। এখনো যদি দলের রাশ শক্ত হাতে না ধরেন নেত্রী তাহলে হয়তো অনেক বড় অঘটন ঘটতে পারে ২০২১ এ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!