এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফের বিজেপিকে ধাক্কা দিয়ে ঘরে ফিরলেন কাউন্সিলররা, শক্তি বাড়াচ্ছে তৃণমূল

ফের বিজেপিকে ধাক্কা দিয়ে ঘরে ফিরলেন কাউন্সিলররা, শক্তি বাড়াচ্ছে তৃণমূল

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি হওয়ার পরই দিকে দিকে তৃণমূল কাউন্সিলর গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেন। যেখানে উত্তর 24 পরগনার একাধিক পৌরসভার শাসকদলের কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগদান করলে সেই পৌরসভার রাজনৈতিক রং গেরুয়া হয়ে যায়।

এদিকে দলের কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগদান করায় প্রবল চিন্তায় পড়ে তৃণমূল নেতৃত্ব। তবে সম্প্রতি অবস্থা পরিবর্তন হতে থাকে। উত্তর 24 পরগনার যে সমস্ত পৌরসভায় তৃণমূল কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন, তারা ফের তৃণমূলে ফিরে আসেন। যার ফলে সেই সমস্ত পৌরসভা ফের শাসকদলের দখলে চলে আসে। আর এবার উত্তর 24 পরগনার সেই সমস্ত পৌরসভার ছায়া পড়ল নদীয়ার হরিণঘাটা পৌরসভাতেও।

প্রসঙ্গত, এই হরিণঘাটা পৌরসভার 17 টি আসন তৃণমূলের দখলে থাকলেও লোকসভা ভোটে দক্ষিণ নদিয়ায় তৃণমূলের ভরাডুবির পরই আটজন তৃণমূল কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগ দেন। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ার জন্য এর পরও সেই পৌরসভা দখল করতে পারেনি বিজেপি। তবে তারা দাবি করেছিল যে, এই হরিণঘাটা পৌরসভার আরও তৃণমূল কাউন্সিলর বিজেপিতে আসবেন এবং এই পৌরসভা গেরুয়া শিবিরের দখলে চলে আসবে। তবে বিজেপি এই দাবি করলেও পুরোপুরি উল্টো চিত্র দেখা গেল এদিন।

সূত্রের খবর, বিজেপিতে যোগ দেওয়া 7 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুগি সোরেন এবং 17 নম্বর ওয়ার্ডের সৌমেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার তৃণমূল ভবনে গিয়ে ফের তৃণমূলে যোগদান করেন। কিন্তু প্রথমে তাহলে তারা কেন বিজেপিতে গিয়েছিলেন! আর কেনই বা ফের তৃণমূলে ফিরে আসলেন!

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে সেই কাউন্সিলররা বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একমাত্র সকল শ্রেণীকে নিয়ে চলতে পারেন। বিজেপিতে গিয়ে দেখলাম ওরা বিভাজনের রাজনীতি করে। তাই ভুল বুঝতে পেরে ঘরে ফিরলাম।” এদিকে সৌমেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের সময় আশ্চর্য হয়ে গিয়েছিলেন হরিণঘাটা শহর তৃণমূলের সভাপতি উত্তম সাহা।

এদিন সেই সৌমেন্দ্রনাথবাবু ফের তৃণমূলে ফিরে আসায় কিছুটা আশ্বস্ত উত্তমবাবু। তিনি বলেন, “সৌমেনকে দল যথেষ্ট সম্মান দিয়েছিল। তার পরেও ওর দলত্যাগটা মেনে নেওয়া যায়নি। সৌমেন বুঝেছেন তৃণমূল ওকে কতটা সম্মান করত। তাই তিনি আবার ফিরে এসেছেন।”

এদিকে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসে আবার তৃণমূলে ফিরে যাওয়ায় কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়েছে গেরুয়া শিবির। এদিন এই প্রসঙ্গে নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতি মানবেন্দ্রনাথ রায় বলেন, “লোকসভা ভোটে যখন হরিণঘাটায় ভালো ফল করেছিলাম, তখন ওই দুইজন কাউন্সিলর ছিলেন না। তাই ওদের নিয়ে ভাবছি না।”

তবে বিজেপি নেতৃত্ব যাই বলুন না কেন, যে ভাবে উত্তর 24 পরগনা জেলার অধিকাংশ পৌরসভার মত হরিণঘাটা পৌরসভাতেও ঘর ওয়াপসি প্রক্রিয়া শুরু হল, তাতে গেরুয়া শিবির যে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!