এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শুভেন্দু গড়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ তৃণমূল নেতাদের

শুভেন্দু গড়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ তৃণমূল নেতাদের

পঞ্চায়েত ভোটের পরেও বিজেপিতে যোগদান অব্যাহত। আজ মেদিনীপুর দলীয় কার্যালয়ে একটি কর্মসূচি ছিল সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি জেলা সভাপতি সমিত দাস ,মোর্চা রাজ্য কমিটির সদস্য অপর্ণা নস্কর, জেলা সাধারণ সম্পাদক সৌমেন তিওয়ারি সহ অন্য নেতৃবৃন্দ। এদিন এনাদের উপস্থিতিতে তৃণমূল, কংগ্রেস ও সিপিআইএম ছেড়ে ৫০ জন নেতা সমেত প্রায় ৩০০০ কর্মী-সমর্থক বিজেপিতে যোগদান করেন। এনাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি জেলা সভাপতি সমিত দাস।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

যোগদানকারীদের মধ্যে ছিলেন চন্দ্রকোণা রোডের স্থানীয় তৃণমূল নেতা মুক্তার খান, কড়শা অঞ্চলের নির্বাচিত প্রতিনিধি ও তৃণমূলের কার্যকর্তা বংশীবদন ঘোষ, মইনুদ্দিন খান সহ বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা।   এদিন বিজেপিতে যোগ দিয়ে মুক্তারবাবু জানান যে,”রাজ্যে তৃণমূল সরকারের আমলে কোনও উন্নয়ন হচ্ছে না। এদিকে, দেশ গড়ছেন মোদিজি। দেশজুড়ে উন্নয়ন হচ্ছে। উন্নয়নে সামিল হয়ে দেশ গড়়তে আমি বিজেপি-তে যোগ দিলাম।” এদিন শুধু তৃণমূলের নেতাই নয়। বিজেপিতে যোগ দেন জেলা যুব কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক তন্ময় রায় ও। তিনিও মুক্তারবাবুর সুরে সুর মেলান। এদিন স্বাভাবিকভাবেই খুশি বিজেপি শিবির। সুমিতবাবু জানান, “তৃণমূলের অত্যাচারের প্রতিবাদে একাধিক নেতা, কর্মী ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করেছেন। দলে আসা সব নেতা, কর্মীদের অভিনন্দন জানাই। ” এদিকে তৃণমূলের তরফ থেকে দাবি যে তৃণমূলের কেউ বিজেপিতে যায়নি। এই নিয়ে তৃণমূল জেলা যুব সভাপতি রমাপ্রসাদ গিরি বলেন, “ওরা তৃণমূল কর্মী নয়। নির্দল ছিল। হেরে গেছে। তৃণমূল ওখানে জিতেছে। ওদের হাত ধরে কে যাবে ? কেউ তৃণমূল ছাড়েনি।” সামনেই বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি আসছেন বাংলায়। আর তার আগে এইভাবে নিজেদের সংগঠন বাড়ানোয় স্বভাবতই খুশির হাওয়া বইছে বিজেপি শিবিরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!