এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শ্রাদ্ধ বাড়ি যাওয়ার নামে ‘চুপিচুপি’ তৃণমূলে যোগ দিয়ে অবশেষে সামনে এলেন বিধায়ক

শ্রাদ্ধ বাড়ি যাওয়ার নামে ‘চুপিচুপি’ তৃণমূলে যোগ দিয়ে অবশেষে সামনে এলেন বিধায়ক

তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রথম প্রকাশ্যে এলেন বাঁকুড়ার ছাতনার বিধায়ক ধীরেন্দ্রনাথ লায়েক। ধীরেন বাবু এর আগে প্রাক্তন আর.এস.পি বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন একই আসন থেকে। উল্লেখ্য গত ১৬ ফেব্রুয়ারি জেলার বাম নেতৃত্ব কে গোপণ করে রাইপুরের হলুদকানালিতে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের এক সভায় তৃণমূল সাংসদ ও দলের পর্যবেক্ষক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে বিধায়ক ধীরেন্দ্রনাথ লায়েক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করে। ঐ সময় আর.এস.পি-র জেলা নেতৃত্ব কে ধীরেন বাবুর বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে , তারা বলেন ,” কাল রাতে তো উনি আমাদের জেলা অফিসেই ছিলেন। গ্রামে শ্রাদ্ধ বাড়ি আছে বলে অফিস থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন।” এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের সম্বর্ধনা সভায় এই প্রথম প্রকাশ্যে দেখা গেলো বিধায়ক ধীরেন্দ্রনাথ লায়েককে। এদিনের সভায় সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া বিধায়ক ধীরেন্দ্রনাথ লায়েক বললেন, ”জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুযোগ্য নেতৃত্বে রাজ্য সরকারের উন্নয়ন কর্মযজ্ঞে যোগ দিতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। আমার বিধানসভা এলাকার সার্বিক উন্নয়নে সর্বদা সচেষ্ট থাকব। একই সঙ্গে তিনি দলীয় নেতৃত্ব সহ সাধারণ মানুষকে ছাতনা বিধানসভা এলাকার উন্নয়নে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানায়। যদিও তাঁর পুরনো দল আর.এস.পি বা বামফ্রন্ট সম্পর্কে এদিন একটি কথাও তিনি বলেননি।” এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন , বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি শিবাজী ব্যানার্জী, ছাতনা পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মাধব ব্যানার্জি, ইন্দপুর ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি দেবব্রত চ্যাটার্জী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব দাবি অনুযাই এদিনের সভায় প্রায় দু’শো সিপিআইএম  কর্মী তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!