এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > যোগীর মন্ত্রীর 12 দিনের চেষ্টাতেও বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণের “সুযোগ” হল না – তীব্র ক্ষোভ সাংবাদিকদের সামনে

যোগীর মন্ত্রীর 12 দিনের চেষ্টাতেও বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণের “সুযোগ” হল না – তীব্র ক্ষোভ সাংবাদিকদের সামনে

এবার রাজ্যে বিজেপির রথযাত্রার আটকে যাওয়া নিয়ে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রবল কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের পশুপালন ও মৎস্য দপ্তরের মন্ত্রী এস পি সিং বাঘেল।

সূত্রের খবর, উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগের কুম্ভমেলা উপলক্ষে বিভিন্ন রাজ্যের রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রী, খেলাধুলো ও সংস্কৃতি জগতের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে সেখানকার সরকার। তার জন্য বিভিন্ন রাজ্যে আমন্ত্রণ জানাতে যোগী সরকারের পক্ষ থেকে এক এক জন করে মন্ত্রীও পাঠানো হচ্ছে।

এদিন সেই কুম্ভ মেলায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য রাজ্যে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই তীব্র কটাক্ষ করলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের মন্ত্রী এস পি সিং বাঘেল। এদিন কলকাতায় উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন, “এই রাজ্যে আমাদের রথযাত্রাকে আটকে দেওয়া হল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার জন্য কেউ কি লাল কার্পেট বিছিয়ে রেখেছিল? তিনিও তো আন্দোলন করেই ক্ষমতায় এসেছেন। আইন-শৃংখলা রাজ্যের দেখার বিষয়। পরিস্থিতি খতিয়ে শর্ত আরোপ করে আমাদের এই রথযাত্রার অনুমতি দিলে কোনো সমস্যাই হত না।”

আর এরপরই দীর্ঘ দিন ধরে সেই কুম্ভমেলায় আমন্ত্রনের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে দেখা করে তাঁর হাতে আমন্ত্রণপত্র তুলে দেওয়ার চেষ্টা করলেও মুখ্যমন্ত্রীর সাথে দেখাই করা যাচ্ছে না বলে জানান উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের এই মন্ত্রী। এদিন এস পি সিং বাঘেল বলেন, “গত 12 দিন ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগযোগের চেষ্টা করছি। কিন্তু তিনি এখানে না থাকায় তা সম্ভব হচ্ছে না। শনিবার তার সঙ্গে দেখা না হলে প্রতিনিধি মারফত এই আমন্ত্রণ পাঠানো হবে।”

হয়ত মুখ্যমন্ত্রী আমাদের আমন্ত্রণ প্রকাশ্যে গ্রহণ করতে চান না তাই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন উত্তর প্রদেশের বিজেপি সরকারের পশুপালন ও মৎস্যমন্ত্রী। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগের কুম্ভমেলাকে অর্ধকুম্ভের বদলে হলে পূর্ণকুম্ভ বলে প্রচার করা হচ্ছে এমনই অভিযোগ করেন গঙ্গাসাগরের কপিলমুনির আশ্রমের মহন্ত। এদিন সেই প্রসঙ্গেই কপিলমুনি আশ্রমের প্রধানকে কটাক্ষ করে উত্তর প্রদেশের বিজেপি সরকারের মন্ত্রী এস পি সিং বাঘেল বলেন, “অর্ধ বা পূর্ণ যাই হোক না কেন! আমরা এটাকে মহাকুম্ভই বলছি ।”

 

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

 

এদিকে কদিন আগে গঙ্গাসাগরে গিয়ে কুম্ভমেলায় প্রচুর টাকা বরাদ্দ করলেও বিজেপি গঙ্গাসাগরের জন্য কোন সাহায্য করছে না বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন রাজ্যে এসে সেই মুখ্যমন্ত্রীকে একহাত নেন এস পি সিং বাঘেল। তিনি বলেন, “আসতে আসতে দেখলাম 50 মিটার অন্তর অন্তর মুখ্যমন্ত্রীর বড় বড় ছবি। তাই এসব করার জন্য যখন সরকারের টাকা আছে, তখন গঙ্গাসাগরের উন্নয়নের জন্যও রাজ্য কিছু খরচ করুক।”

রাজনৈতিক মহলের মতে, কুম্ভমেলার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ করতে আসলেও আদতে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধেই বিভিন্ন ইস্যুতে তোপ দেগে লোকসভা ভোটেরই দামামা বাজানোর চেষ্টা করলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী। তাই এখন কুম্ভ মেলার আমন্ত্রণ পেয়েও মুখ্যমন্ত্রী আদৌ সেখানে যান কিনা এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!