এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > রাজ্যের কর্মসংস্থান! শিশুদের জন্য রান্না করা ও ঝাঁট দেওয়ার কাজে আবেদন বহু মাস্টারডিগ্রির!

রাজ্যের কর্মসংস্থান! শিশুদের জন্য রান্না করা ও ঝাঁট দেওয়ার কাজে আবেদন বহু মাস্টারডিগ্রির!

কিছুদিন আগেই এমএ পাস করা এক ব্যক্তির শ্মশানে ডোমের পদে নিয়োগ হওয়ার জন্য পরীক্ষা দেওয়ায় রাজ্যের কর্মসংস্থান নিয়ে এক বড় মাপের প্রশ্নচিহ্ন তৈরি হয়েছিল। আর এবারে শিশুদের জন্য রান্না করা, ঝাট দেওয়া ও বাচ্চাদের দেখভাল করা অর্থ্যাৎ অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের “হেল্পার” পদে চাকরি পেতে আবেদন করছেন এমএ পাস ছাত্রীরা।

পাশাপাশি ওয়ার্কার পদেও সেই এমএ পাশ স্নাতক ছাত্রীদের আবেদন পড়ায় চোখ কপালে উঠছে অনেকেরই। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উত্তর 24 পরগনা জেলায় পুরসভা ও ব্লক মিলিয়ে বর্তমানে মোট 10 হাজার 150 টি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র রয়েছে। আর প্রত্যেক কেন্দ্রে একজন ওয়ার্কার ও একজন করে হেলপার থাকা উচিত।

কিন্তু বিগত বেশ কয়েক মাস ধরে সেই অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রগুলিতে ওয়ার্কার ও হেল্পারের বেশির ভাগ পদ শূন্য রয়েছে। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে কেউ অবসর নিয়ে আবার কেউ কেউ নিজের কেন্দ্র বদল করছেন। তাই এই সমস্ত শূন্যপদে নিয়োগের জন্য গত 29 মে জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন।

আর এরপরই একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয় যে, এই জেলায় অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রগুলিতে 157 জন ওয়ার্কার এবং 497 জন হেলপার নিয়োগ করা হবে। এদিকে এই ওয়ার্কার পদে আবেদন করার জন্য মাধ্যমিক এবং হেলপারের পদে অষ্টম শ্রেণী থাকলেও সেখানে আবেদন করতে দেখা যায় বেশিরভাগই স্নাতক ও এমএ পাস ছাত্রীদের।

শুধু তাই নয়, এই 654 টি পদের জন্য পরীক্ষায় বসছেন প্রায় 20 হাজার তরুণী। অর্থাৎ এক একটি পদের জন্য আবেদন করেছেন সাড়ে 30 জন ব্যক্তি। সূত্রের খবর, গত 16 এবং 30 শে সেপ্টেম্বর দুদিন ধরে এই ব্যাপারে লিখিত পরীক্ষাও নেওয়া হয়েছে। এখন চলছে খাতা দেখার কাজ। কিন্তু এই হেলপার এবং ওয়ার্কার পদে এম এ পাস বা স্নাতক উত্তীর্ণ ছাত্রীদের আবেদন পত্র দেখে হতবাক জেলা প্রশাসনের কর্তারা।

এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর 24 পরগনা জেলার আইসিডিএস কমিটির চেয়ারম্যান তথা রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “এমএ পাস বা স্নাতকরা চাকরির আবেদন করতেই পারেন। আমরা তো আর তাদের বাদ দিতে পারি না।” সব মিলিয়ে উত্তর 24 পরগনার অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রগুলোতে ঠিক কোন পরিস্থিতি দাড়ায় এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!