এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর! 2021 এর বিধানসভার আগেই 17 হাজার শিক্ষক নিয়োগের পথে রাজ্য

চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর! 2021 এর বিধানসভার আগেই 17 হাজার শিক্ষক নিয়োগের পথে রাজ্য

 

রাজ্যে বেকারদের কর্মসংস্থান এই বলে মাঝেমধ্যেই দাবি করে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। আর 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই কর্মসংস্থানের অভাবের দিকটিকে তুলে ধরেই শাসকদলের বিরুদ্ধে ময়দানে নামতে পারে বিরোধীরা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এমনটাই দাবি করেছেন। কিন্তু বিরোধীদের সেই দাবিকে কেড়ে নিয়ে এবার কর্মসংস্থানের ব্যাপারে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে রাজ্য সরকার।

সূত্রের খবর, রাজ্যের প্রতিটি স্কুলে প্রায় 17 হাজার কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োগের প্রস্তাব ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গেছে। যেখানে প্রতিটি স্কুলেই যাতে একজন করে শিক্ষক দেওয়া যায় সেই ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, একটা সময়ে আইসিটি শিক্ষকরাই স্কুলে কম্পিউটারের শিক্ষার দায়িত্ব সামলেছেন। অনেক বঞ্চনা মেনেও তারা কম্পিউটারের শিক্ষায় পড়ুয়াদের শিক্ষিত করেছেন। তবে তাদের অনেকেরই গ্রাজুয়েশন না থাকায় অনেক ক্ষেত্রেই তাদের যোগ্য সন্মান দিতে পারেনি সরকার।

জানা গেছে, বর্তমানে যে পাঁচ থেকে ছয় হাজার আইসিটি শিক্ষক রয়েছেন, তাদের সবাইকে এর অধীনে আনা সম্ভব নয়। কিন্তু যাদের প্রয়োজনীয় যোগ্যতা রয়েছে, তাদের সবাইকেই এই ব্যবস্থার অধীনে আনা হবে বলে জানা গেছে। কিন্তু কীভাবে তাদের নিয়োগ করা হবে, সেই বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।অনেকেরই অভিযোগ, এই সমস্ত আইসিটি শিক্ষকরা বহুদিন ধরে বঞ্চনার শিকার।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে বেহানা পারভীন, মোসাব্বর গাজী বলেন, “আমরা ক্লাস নেওয়ার পাশাপাশি কন্যাশ্রী, সবুজসাথীর মত যাবতীয় সরকারি প্রকল্পের কাজও করে থাকি। কিন্তু সর্বোচ্চ বেতন 5 হাজার টাকা সরকার বরাদ্দ করে। কিন্তু এতে আমাদের বেতন প্রায় 22 হাজার টাকার মত হওয়া উচিত। রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বাদ দিয়েই বেতন দেওয়া যায়। কিন্তু তার একটা ভগ্নাংশ আমরা পাচ্ছি। আমাদের 52 দিনে বেতন হয়।”

এদিকে এই ব্যাপারে ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল কম্পিউটার টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সম্পাদক ভূপেশ কেশ বলেন, “আমরা গোটা রাজ্যের প্রায় সাড়ে 6 হাজার জন শিক্ষক রয়েছি। বর্ধিত বেতনের দাবি নিয়ে একাধিকবার শিক্ষামন্ত্রী দ্বারস্ত হয়েছি। তিনি আমাদের আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু থার্ড-পার্টির বিষয়টি থাকায় সরকার সরাসরি কিছু করতে পারছে না। ডিসেম্বর পর্যন্ত থার্ড পার্টির সঙ্গে চুক্তি রয়েছে বলে জানি।”

এদিকে তিনি থার্ড-পার্টির কন্ট্রাক্ট বাতিল করবার জন্য সরকারকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন বলে জানান তৃণমূলের কর্মচারী ফেডারেশনের মেন্টর মনোজ চক্রবর্তী। তবে যে যাই বলুন না কেন, 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের আগ যদি এই কম্পিউটারের 17 হাজার শিক্ষক রাজ্য সরকার নিয়োগ করতে পারে, তাহলে তা রাজ্যের শাসক দলের পক্ষে অত্যন্ত লাভবান হবে বলেই দাবি বিশ্লেষকদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!