এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > জঙ্গলমহলবাসীকে বড় ধাক্কা দিয়ে বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – জানুন বিস্তারিত

জঙ্গলমহলবাসীকে বড় ধাক্কা দিয়ে বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – জানুন বিস্তারিত

রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে জঙ্গলমহলের মানুষের জন্য উপহার হিসাবে শুরু হয়েছিল জঙ্গলমহল উৎসব। কিন্তু, এবছর জঙ্গলমহলের মানুষকে ধাক্কা দিয়ে নির্ধারিত ১৩ ই জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া সেই জঙ্গলমহল উৎসবকে পিছিয়ে দেওয়া হল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৩ ই জানুয়ারি থেকে ২০ শে জানুয়ারি পর্যন্ত জঙ্গলমহল ঝাড়গ্রামে এই উৎসব হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু এবার সেই উৎসব পিছিয়ে দিল রাজ্য সরকার। কিন্তু ঠিক কি কারণে মুখ্যমন্ত্রীর সাধের এই উৎসব পিছিয়ে দেওয়া হল? আর পিছিয়ে ঠিক কবে থেকে আবার শুরু হবে এই জঙ্গলমহল উৎসব? প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আগামী ১৫ ই জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে মকর সংক্রান্তি। আর তার পরেই এই জঙ্গলমহল উৎসব যাতে করা হয় সেই বিষয়টি নজরে আসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের। আর এরপরই ঠিক হয় আগামী ২৪ শে জানুয়ারি থেকে ৩০ শে জানুয়ারি কুমুদকুমারী ইনস্টিটিউশন মাঠে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

জানা গেছে, সরকারের উদ্যোগে এই উৎসবে পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ৭ টি জেলার লোক শিল্পীরা যোগ দেবেন। অন্যদিকে আগামী ২৩ শে জানুয়ারি ঘোড়ধরায় ঝাড়গ্রাম ছাত্র ও যুব উৎসব শুরু হচ্ছে। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আগামী ২৪ শে জানুয়ারি থেকেই জঙ্গলমহল উৎসব সূচনা করতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু, দুটি উৎসব একসাথে ঠিকঠাক ভাবে রূপায়িত হবে তো? প্রশ্ন তুলছেন জঙ্গলমহলবাসী। অন্যদিকে, বিরোধীদের বক্তব্য মকর সংক্রান্তি নয় – আসলে শাসকদলের ব্রিগেড অধিবেশনের জন্যই পিছিয়ে যাচ্ছে জঙ্গলমহল উৎসব।

এদিন এই জঙ্গলমহল উৎসব পিছিয়ে দেওয়া প্রসঙ্গে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো অবশ্য বলেন, “মকর সংক্রান্তি মানুষের বড় উৎসব। তাই এই জঙ্গলমহল উৎসব পিছিয়ে দেওয়ার জন্য অনেকেই আবেদন করেছিলেন। তাই মুখ্যমন্ত্রী সেই উৎসবের তারিখ ঠিক করেছেন”। কিন্তু বিরোধীদের দাবি প্রতি বছর এই সময়েই মকর সংক্রান্তি হয়। আসলে, জঙ্গলমহলের থেকেও মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ব্রিগেড বেশি গুরুত্ত্বপূর্ন বলেই তা পিছিয়ে গেল। আর তাই, জঙ্গলমহল উৎসব ঘিরে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়ে গেল রাজ্য রাজনীতিতে।

Top
error: Content is protected !!