এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > জমজমাট মনোনয়ন পর্বের মাধ্যমেই ইসলামপুর নিজেদের দখলে নেওয়ার যুদ্ধে নেমে পড়ল চার প্রধান দলই

জমজমাট মনোনয়ন পর্বের মাধ্যমেই ইসলামপুর নিজেদের দখলে নেওয়ার যুদ্ধে নেমে পড়ল চার প্রধান দলই

Priyo Bandhu Media

ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়ালকে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী করায় সেই ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি ফাঁকা হয়ে যাওয়ায় এবার সেখানে উপনির্বাচন ঘোষণা হওয়ায় তৎপর সমস্ত রাজনৈতিক দলই। ইতিমধ্যেই এই কেন্দ্রটি দখল করতে সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রার্থী ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে। আর সেইমতো সোমবার এই ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে চার রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিলেন।

সূত্রের খবর, এদিন বেলা 11 টা নাগাদ পুরাতন বাসস্ট্যান্ড থেকে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে 31 নম্বর জাতীয় সড়কের মধ্য দিয়ে মিছিল করে মহকুমা শাসকের অফিসে গিয়ে নিজের মনোনয়নপত্র জমা দেন ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের তৃনমূল প্রার্থী আব্দুল করিম চৌধুরী।

যেখানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি অমল আচার্য, পঞ্চায়েত দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী গোলাম রব্বানি, প্রাক্তন বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়াল, জেলা যুব তৃনমূলের সভাপতি গৌতম পাল সহ অন্যান্যরা। এদিকে মাঝে তৃণমূল থেকে বেরিয়ে পৃথক দল গড়লেও ফের তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে সেই করিম সাহেব টিকিট পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত করিমবাবুর অনুগামীরা।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে আব্দুল করিম চৌধুরী বলেন, “দুই বছরের জন্য এই নির্বাচন। এই নির্বাচনের মাধ্যমে রাজ্য সরকার গঠন বা পরিবর্তন হবে না। তাই সমস্ত রাজনৈতিক দলের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছিলাম যে তারা যেন দুবছরের জন্য প্রার্থী না দেয়। ইসলামপুরের স্বার্থে আমরা সবাই মিলে কাজ করতাম। কিন্তু ওরা তা না করে আজকে মিছিল প্রমাণ করল যে এবার এই ইসলামপুরে তৃনমূল ব্যাপক মার্জিনে জিতবে।”

অন্যদিকে ইসলামপুর স্টেট ফার্ম কলোনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে জড়ো হয়ে 31 নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে মহকুমা শাসকের দপ্তরে গিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন এখানকার বিজেপি প্রার্থী ডাঃ সৌমরুপ মন্ডল। আর সেখানেই তারা এবার বিপুল ভোটে এই কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করবে বলে জানান এখানকার বিজেপি প্রার্থী। পাশাপাশি একই দিনে মনোনয়নপত্র জমা দেন কংগ্রেস প্রার্থী মোজাফফর হোসেন এবং সিপিএম প্রার্থী স্বপন গুহ নিয়োগী।

পাশাপাশি এদিন এসইউসির সুজন পাল নির্দল প্রার্থী হিসেবে তার মনোনয়নপত্র জমা করেন। জয়ের ব্যাপারে তারাও অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী বলে জানান এই রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা। সব মিলিয়ে একই দিনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও শেষ পর্যন্ত এখানে কে শেষ হাসি হাসে তা দেখবার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী 23 মে পর্যন্ত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!