এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আর ইসলামপুর-কান্ড চায় না শিক্ষাদপ্তর, চাকরিপ্রত্যাশী শিক্ষকদের বড়সড় সুখবর, জানুন বিস্তারিত

আর ইসলামপুর-কান্ড চায় না শিক্ষাদপ্তর, চাকরিপ্রত্যাশী শিক্ষকদের বড়সড় সুখবর, জানুন বিস্তারিত


উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগের পরবর্তী পর্যায়ে প্রায় সমস্ত জেলা থেকেই অভিযোগ আসতে থাকে যে একটি পদের জন্য নেওয়া হয়েছে একাধিক শিক্ষক প্রার্থীকে। এমনকি কোথাও কোথাও শূন্য পদ না থাকা সত্ত্বেও কোন কোন প্রার্থীকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে নিয়োগপত্র। যার ফলে স্কুলে গিয়েও ফিরে আসতে হয়েছে সেই চাকরিপ্রার্থীদের।

আর এই নিয়োগ বিভ্রাটের জেরেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরের দারিভিট গ্রাম। যে ঘটনায় গুলিতে প্রাণ হারায় দুই ছাত্র। যা নিয়ে আজও উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে এবার নিজেদের ভুল শুধরে নতুন করে উচ্চমাধ্যমিক স্তরের 500 শিক্ষককে নিয়োগ পত্র দিতে চলেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

সূত্রের খবর, শিক্ষা দপ্তরের সাথে এনিয়ে বৈঠকের পরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, কালীপুজোর পরই নবম এবং দশম শ্রেণীর এই শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। অন্যদিকে উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে পরীক্ষা দিয়ে যারা নতুন করে চাকরি পেয়েছেন বর্তমানে তারাও পড়েছেন এক অদ্ভুত সমস্যার সম্মুখে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কর্মরত শিক্ষকরা নতুন করে পরীক্ষায় বুঝতে পারবেন কিনা তা নিয়ে একটি মামলায় সরকার বলেছিল যে এস এস সি আর এল এস টি তে বসতে পারবেন না এ কর্মরত শিক্ষকরা। কিন্তু সরকারের বিরুদ্ধে অধিকাংশ শিক্ষক আদালতে গিয়ে নিয়োগপত্র পেয়ে গেলেও বর্তমানে তাদের সিনিয়রিটি অগ্রাহ্য করার অভিযোগ উঠেছে সেই সরকারেরই বিরুদ্ধে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন এই প্রসঙ্গে বিটিইএ-র শিক্ষক নেতা স্বপন মন্ডল বলেন, “একজন প্রার্থী কাউন্সেলিংয়ে বাড়ির কাছে স্কুল পেয়েছেন। তাকে কেন এসএসসি বা সরকারের ভুলে দূরে স্কুলে যেতে হবে?” পাশাপাশি গ্র্যাজুয়েট টিচারদের সিনিয়রিটি থেকে বঞ্চিত করার জন্য এদিন তোপও দেগেছেন তিনি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!