এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > প্রবল গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গেরুয়া শিবিরের সভাপতির নামে পড়ল কুরুচিকর পোস্টার

প্রবল গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গেরুয়া শিবিরের সভাপতির নামে পড়ল কুরুচিকর পোস্টার



ফের গোষ্ঠী কোন্দলের খবর প্রকাশ্যে আসলো বিজেপি শিবিরে। এবার ঘটনাস্থল হুগলির চুঁচুড়া। সামনেই লোকসভা ভোট। এখনো সাংগঠনিক ভাবে সেভাবে নিজেদের তুলে ধরতে পারেনি বঙ্গ বিজেপি। আর তাঁর আগেই গোষ্ঠীবিরোধ সামনে আসায় বেশ চাপের মুখেই পড়তে হল বঙ্গ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বদের।
রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা গেল, চুঁচুড়া বিজেপির একটি দলীয় কর্মসূচি হওয়ার কথা ছিল। সেই অনুষ্ঠানে হাজির থাকতেন রাজ্য বিজেপির বাঘা বাঘা নেতৃত্বরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু তাঁর আগেই ঘটে গেলো এক অসন্তোজনক ঘটনা। এদিন সকালে চুঁচুড়ার তিন নম্বর গেট সংলগ্ন বিজেপির অফিসের সদর দরজার সামনে এক কুরূচিকর পোস্টার চোখে পড়ল জেলা সাংগঠনিক সভাপতি সুবীর নাগ এবং রাজ্য সম্পাদক দীপাঞ্জন গুহের বিরুদ্ধে। সেই পোস্টে দুজনকেই চোর,চরিত্রহীন,দালাল খেতাব দেওয়া হয়েছে এবং পোস্টারের নীচে বড় বড় অক্ষরে লিখে দেওয়া হয়েছে বিজেপি। এমনিতেই দলের কর্মসূচি নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন বিজেপি সমর্থকরা। তাতে গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো সামনে এলো এ পোস্টার। পোস্টার দেখে চক্ষু চড়ক গাছ হল বিজেপি আমলাদের। সঙ্গে সঙ্গেই বিষয়টিকে ধামাচাপা দিতে সেটিকে ছিঁড়ে ফেলা হল। তবে এধরনের বিজেপি সমন্ধীয় কুরূচিকর পোস্টার প্রকাশ্যে আসায় বেশ অস্বস্তিতে পড়ল রাজ্যের গেরুয়া শিবির। এই ইস্যুকেই বিরোধীরা অস্ত্র বানাবে লোকসভা ভোটের আগে এমনটাই আশঙ্কা করছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের একাংশ। এমনিতেই তাঁদের দলীয় ত্রুটি কম নেই, এছাড়া ইদানিং কালে নানা বিতর্কেও পদ্মশিবির জড়াচ্ছে দফায় দফায়। তাই এদিনের বিজেপি বিরোধী কুরূচিকর পোস্টারটি কে বা কারা করেছে তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমে পড়েছেন বিজেপি নেতারা। তবে এ কর্মসূচি গোপনে চলছে বলেই খবর পাওয়া গেছে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে যার বিরুদ্ধে এতো কটু উক্তি করা হল সেই জেলা সভাপতি সুরীব নাগ মুখের রা টি কাটলেন না এই প্রসঙ্গে। উল্টে দাবী করলেন যে, তিনি নাকি নিজের চোখে এই ধরণের কোনো পোস্টারই দেখেননি। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের দাবীও তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিলেন। এমনকি পাল্টা দাবী করে বললেন যে, বিজেপি সাংগঠনিকভাবে যথেষ্ট শক্তিশালী হুগলিতে। এমনকি জেলায়ও রাজনৈতিক এবং সাংগঠনিকভাবে অনেক বেশি শক্তি সঞ্চয় করছে করছে রাজ্যের পদ্মশিবির। এটাই নাকি বিরোধীদের সহ্য হচ্ছে না তাই তাঁরা এরকম মিথ্যে রটনা করছেন।তাই তাঁরা এরকম মিথ্যে রটনা করছেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!