এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ও তোলাবাজি নিয়ে বিস্ফোরক দোলা সেন

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ও তোলাবাজি নিয়ে বিস্ফোরক দোলা সেন

সম্প্রতি দলের তোলাবাজি নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে দেখা গেলো তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের সভাপতিত্বের দায়িত্বে আসা দোলাসেনকে। ২১ জুলাই ধর্মতলায় তৃণমূলের বৃহৎ জনসমাবেশের প্রস্তুতি সভা উপলক্ষ্যে বর্ধমানের লোকমঞ্চে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানে তৃণমূলের দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেন তিনি। উল্লেখ্য, বর্তমানে তোলাবাজি নিয়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে যে হারে লাগাতার অভিযোগ তোলা হচ্ছে তা নিয়ে ভীষণ উদ্বেগে রয়েছেন নবান্ন কর্তারা। এই দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে INTTUC কর্তাদেরও। তাই বাধ্য হয়ে দলীয় কর্মীদের সতর্ক করতে হল সভানেত্রীর।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

হুঁসিয়ারী মন্তব্য মঞ্চ কাঁপিয়ে এদিন তিনি জানালেন যে, কুপন ছাপিয়ে বা জোর করে তোলাবাজি করা যাবে না। আর তোলাবাজির খবর মিললেই অভিযুক্তদের ছাড়া হবে না। সমস্ত চাঁদা তো বাজেআপ্ত করাই হবে দলের তরফ থেকে। শুধু তাই নয়,জোর করে যদি কেউ এক টাকা কিংবা দু টাকাও নেন সেটাই বরদাস্ত করা হবে না। এসব অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের তরফ থেকে নেওয়া হবে উপযুক্ত পদক্ষেপ। তোলাবাজির পাশাপাশি গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের বিরুদ্ধেও একইভাবে সবর ছিলেন নেত্রী। দলীয় কর্মীদের এদিন সাফ কথায় তিনি জানিয়ে দিলেন যে জেলায় INTTUC -র একটাই সংগঠন থাকবে। এবং সবাইকে একজোট হয়ে এক ছাদের তলাতেই কাজ করতে হবে।

এছাড়া আরো জানান যে, কেউ কেউ মিছিলে একটু বেশি লোক জড়ো করতে পারার সক্ষমতার দাপট হাঁকিয়ে মাদার সংগঠনের উপর হুকুম চালাতে পারবে না। বাম জামানার মতো ছোট ছোট ইস্যুতে গেট অবরোধ,লক আউট,ধর্মঘটের ডাক দিতে পারবেন না। উল্লেখ্য,এদিনের অনুষ্ঠানে মন্ত্রী স্বপন দেবনাঢ সহ তৃণমূলের আরো অনেক দাপুটে নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সভানেত্রী এ ধরনের সতর্কবার্তার জেরে কার্যত থমথমে অবস্থায় রয়েছে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠন। আগামী দিনগুলোতে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এবং তোলাবাজির মতো দুর্নীতি অভিযোগ দলীয় অন্দরে আর পাওয়া যাবে না বলেই আশা করছেন শাসকদলের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!