এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > রেলযাত্রীদের জন্য সুখবর – এবার বড়সড় ছাড় পেতে চলেছেন টিকিটে, জেনে নিন বিস্তারিত

রেলযাত্রীদের জন্য সুখবর – এবার বড়সড় ছাড় পেতে চলেছেন টিকিটে, জেনে নিন বিস্তারিত


রেলের ফাঁকা আসন নিয়ে রেলমন্ত্রকের দুঃশ্চিন্তার অন্ত ছিল না। দেখা যেত ট্রেন ছুটছে অথচ আসন ফাঁকা, ফলে লোকসান হত রেলের। এবার এ থেকে মুক্তি পেতে রেল নিয়ে এল বেশ কিছু ট্রেনের টিকিটে ছাড়। এবার যাতে ফাঁকা আসন নিয়ে ট্রেন আর না ছোটে তার জন্য রেলমন্ত্রক শতাব্দী, তেজস, ইন্টারসিটি এবং দ্বিতল ট্রেনগুলির ভাড়া ২৫ শতাংশ কমিয়ে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে। এতে রেলের লোকসানো কমবে বলে ভাবা হচ্ছে।

তবে ছাড় শুধুমাত্র সেই ট্রেনগুলিই পাবে যারা গতবছর লোকসানের মুখ দেখেছিল ফাঁকা আসনের কারণে। তাই প্রতিটি জোনের প্রিন্সিপ্যাল কমার্শিয়াল ম্যানেজার সিদ্ধান্ত নেবেন কোন ট্রেনের ভাড়া কমবে।
জানা গেছে ২০১৮ সালে যে ট্রেনগুলিতে ৫০ শতাংশের কম যাত্রী নিয়ে লোকসানে চলেছিল, একমাত্র সেইসব ট্রেনের টিকিটেই ছাড় দেওয়া হবে। ৩০ শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে লোকসানে চলা ট্রেনগুলিকেচিহ্নিত করা হবে বলে জানা গেছে রেলের নোটিশ অনুযায়ী।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

রেলের প্রতিটি রিজিওনকে জানানো হয়েছে আগামী ৪ মাসের মধ্যে সমস্ত রিপোর্ট জমা করতে। একইসঙ্গে, নতুন নিয়ম চালু হবার পর যাত্রী সংখ্যা বাড়ল কিনা তাও উল্লেখ করতে হবে সংশ্লিষ্ট জোনকে। তবে কলকাতার ভাগ্যে এবারে শিকে ছেঁড়ে নি – কারণ তিনটে শতাব্দী এক্সপ্রেস যথা – রাঁচি শতাব্দী, এনজেপি শতাব্দী এবং পুরী শতাব্দী চলে হাওড়া থেকে এবং প্রতিটিতেই ভরপুর যাত্রী হয় বলে জানা গেছে। তাই নতুন নিয়ম কলকাতার জন্য নয়।

সূত্রের খবর, রেলমন্ত্রক মনে করছে, নতুন নিয়মের ফলে যাত্রীসংখ্যা যেমন বাড়বে তেমনই রেলও লাভের মুখ দেখবে। দেখা যাক রেমন্ত্রকের এই নতুন পরিকল্পনা কিরকম কাজ করে। কেননা, ইতিমধ্যেই ভারতীয় রেলের তরফে জানানো হয়েছে – বিপুল পরিমান সাবসিডি দিয়ে চালানো হচ্ছে। তবুও রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল যাত্রীভাড়া বাড়াতে নারাজ। এই অবস্থায় রেলের বেশ কিছু অংশ পিপিপি মডেলে চালানোর কথা ভাবা হচ্ছিল। এই অবস্থায়, ক্ষতি কমাতে রেলের এই নতুন পদক্ষেপের দিকে তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!