এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সুসম্পর্ক স্থাপনের জন্য উদ্যোগী হলেন খোদ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সুসম্পর্ক স্থাপনের জন্য উদ্যোগী হলেন খোদ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

গত 14 ই ফেব্রুয়ারি পবিত্র ভালোবাসার দিনে জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় জঙ্গিহানায় প্রাণ হারিয়েছেন ভারতবর্ষের প্রায় 42 জন জওয়ান। আর স্বাধীন ভারতবর্ষে এত বড় জঙ্গি হামলার ঘটনায় শোকাহত গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই এই জঙ্গী হামলায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মদত দেওয়ার অভিযোগে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে ভারত।

মোমবাতি থেকে শোক মিছিল করে যেনতেন প্রকারে এবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বদলা নিতেই হবে এহেন দাবি করে দেশের ভারত সরকারের কাছে তাদের দাবি জানাতে শুরু করেছে সাধারন জনগন। অন্যদিকে চুপ করে নেই ভারতও। কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং ইতিমধ্যেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে। পাশাপাশি পাকিস্তানের আমদানি শুল্কের করও বাড়িয়ে দিয়েছে ভারতবর্ষ।

অন্যদিকে ভারতের প্রতি এহেন হামলা করা কোনমতেই ঠিক হয়নি এই পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের পাশে থেকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে বিভিন্ন দেশ। নৃশংস হামলার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালকে মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জল বন্টন পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে হোয়াইট হাউসের স্টেট সেক্রেটারি মাইক পম্পেও সন্ত্রাসবাদকে শেষ করতে পাকিস্তানকে কড়া ভূমিকা নিতে হবে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু এহেন একটা পরিস্থিতিতে ভারত- পাকিস্তানের সম্পর্কের পরিপ্রেক্ষিতে ঠিক কি বলেন খোদ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সেদিকেই তাকিয়ে ছিলেন অনেকে। অবশেষে মুখ খুললেন সেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট। তবে পাকিস্তানের নৃশংস হামলার কড়া সমালোচনা তিনি করলেন ঠিকই, পাশাপাশি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে যাতে সুসম্পর্ক ঘটানো যায় তার জন্যও বিবৃতি দিলেন।

সূত্রের খবর, এদিন হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, “কাশ্মীরে জঙ্গি হামলা সত্যিই ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। আমরা এই ব্যাপারে রিপোর্ট চেয়েছি। আর তারপরই বিবৃতি দিয়ে জানানো হবে। কিন্তু দক্ষিণ এশিয়ার সব দেশগুলি যদি একত্রিত হয়ে জঙ্গি দমনে এগিয়ে আসে তবে তা ভালই হবে।

ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে সুসম্পর্ক হলে তা সব দিক থেকেই মঙ্গলের।” বিশেষজ্ঞদের মতে, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আসলে পাকিস্তানের এহেন নিশংস হামলা যেমন কড়া সমালোচনা করলেন, ঠিক তেমনই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সুসম্পর্কের বাধন ঘটানোরও চেষ্টা করলেন তিনি। তবে ট্রাম্পের সেই চেষ্টা ঠিক কতটা সার্থক হয় এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!