এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আরও শক্তিশালী ভারতীয় বায়ুসেনা – অবশেষে হাতে এল রাফালে বিমান

আরও শক্তিশালী ভারতীয় বায়ুসেনা – অবশেষে হাতে এল রাফালে বিমান

অবশেষে দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটল। ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে এল বহু প্রতীক্ষীত যুদ্ধবিমান রাফালে। বৃহস্পতিবারই ভারতের হাতে প্রথম রাফালে যুদ্ধবিমান তুলে দেয় ফ্রান্সের সংস্থা দাসাল্ট অ্যাভিয়েশন। বৃহস্পতিবার বায়ুসেনার ডেপুটি চিফ মার্শালের হাতে যুদ্ধবিমানটি তুলে দেয় প্রস্তুতকারী সংস্থা। পূর্ব পরিকল্পনা মতো চুক্তি হওয়ার প্রায় ৩ বছর পর যুদ্ধবিমানটি হাতে পেল ভারতীয় বায়ুসেনা।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বায়ুসেনা সূত্রের খবর, যে রাফালে যুদ্ধবিমানটি ভারত হাতে পেয়েছে তাঁর নম্বর (টেল নম্বর) রাখা হয়েছে আর বি-১। ভারতের পরবর্তী বায়ুসেনা প্রধান এয়ার মার্শাল রাকেশ কুমার সিং ভাদুড়িয়ার নাম অনুসারে তৈরি হয়েছে ভারতের প্রথম রাফালে যুদ্ধবিমানের টেল নম্বর।

অক্টোবর মাস থেকে বায়ুসেনার পরবর্তী প্রধান হচ্ছেন এয়ার মার্শাল আরকেএস ভাদুরিয়া। আরকেএস ভাদুরিয়া হলেন প্রথম ভারতীয় বায়ুসেনা আধিকারিক যিনি রাফালে বিমান চালিয়েছেন। এবং ফ্রান্সের থেকে এই বিমানগুলি কেনার চুক্তি রূপায়ণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। 2016 র সেপ্টেম্বর মাসে ভারত-ফ্রান্স যৌথ আলোচনার পর এই সময়েই ভারত যুদ্ধবিমান রাফালে তৈরির দায়িত্ব তুলে দিয়েছিল ফরাসি সংস্থা দাসাল্ট অ্যাভিয়েশনকে।

রাফালে যুদ্ধবিমানটি দূরপাল্লায় একইসঙ্গে যুদ্ধাস্ত্র এবং মিসাইল বহনে সক্ষম। চুক্তি অনুযায়ী, ৩৬টি উচ্চপ্রযুক্তি সম্পন্ন যুদ্ধবিমান কিনতে ভারতকে দিতে হবে ৫৮ হাজার কোটি টাকা। এই ৩৬টি যুদ্ধবিমানের মধ্যে প্রথমটি ভারতের হাতে চলে এল। রাফালে ইস্যুতে শুরু হওয়া বিতর্কের অবসান এখনও ঘটেনি।বিরোধীদের করা অভিযোগ ‘চৌকিদার চোর হ্যায়.’ কিনা সে ফয়সলাও এখনও হয়নি।

সুপ্রিম কোর্টে এখনও রাফালে চুক্তি পুনর্বিবেচনা মামলার শুনানি চলছে। তবে, ভোট মিটে যাওয়ায় সেসব নিয়ে আর খুব একটা মাথা ঘামাচ্ছে না দেশের রাজনৈতিক মহল। যাই হোক, রাফালে নিয়ে যাবতীয় বিতর্কের মধ্যেও একটা বিষয়ে কারও মনে কোনও সংশয় নেই। তা হল, এই যুদ্ধবিমানটির কার্যকারিতা। রাফালে যুদ্ধবিমানের কার্যকারিতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেনি বিরোধীরাও। তাই, রাফালে হাতে আসায় ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি যে অনেকটাই বেড়ে যাবে এ নিয়ে কারও মনে কোনও সন্দেহ নেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!